শিরোনামঃ
কাশিমপুর কারাগারে পাকিস্তানি কয়েদির মৃত্যু  যশোরের শার্শায় প্রেমের ঘটনায় প্রেমিকের চাচাকে পিটিয়ে হত্যা কাজিপুরে হেরোইনসহ মাদক সম্রাট বাদশা আটক কাজিপুরে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ গাজীপুরে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিছিন্ন, অর্থদন্ডসহ কারাদণ্ড বেনাপোলে সোনা চোরাচালান মামলার চার্জশিট, ভারতীয় নারী অভিযুক্ত কাজিপুরে দুনীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত কালিয়াকৈরে মায়ের হাতে মেয়ে খুন  তুরাগ এক্সপ্রেস ট্রেন লাইনচ্যুত সিরাজগঞ্জে জেলা আওয়ামী মৎস্যজীবিলীগের উদ্যোগে ২১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত তিন উপজেলার সব প্রার্থীকে টপকে সর্বোচ্চ ভোট সালমার কাজিপুরে উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে অগ্নিসংযোগ ও স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে মারধর ঘটনায়‌ প্রধান আসামি আটক বাসন থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি গঠন নেশার টাকা না দেয়ায় স্ত্রীকে মধ্যযোগীয় কায়দায় নির্যাতন আপনাদের সেবক হিসেবে থাকতে চাই-এমপি সুজন বাসা ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বিশ্ব মৌমাছি দিবস ২০২৪ উদযাপিত কাজিপুরে ৩ দিনব্যাপী কৃষি মেলার শুরু আমবাড়ীতে আনারস প্রতীক গণসংযোগে চেয়ারম্যান প্রার্থী হাফিজুল ইসলাম উল্লাপাড়ার নাইমুড়িতে নির্বাচনী দায়িত্ব পালনকালে এক নারী আনসার সদস্যের মৃত্যু ! তথ্যপ্রযুক্তি খাতে করারোপ হচ্ছে না

অবৈধ ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিক সেন্টার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে বন্ধের নির্দেশ

কলমের বার্তা / ১৯৪ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : শুক্রবার, ২৭ মে, ২০২২

দেশের সব অবৈধ ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিক সেন্টার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এই সময়ের পর নিবন্ধনহীন কোনো ক্লিনিক বা ডায়াগনস্টিক সেন্টার চালু থাকলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) দুপুরে ঢাকা পোস্টকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (হাসপাতাল ও ক্লিনিক) ডা. মো. বেলাল হোসেন।

তিনি জানান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে বুধবার (২৫ মে) অবৈধ ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলো নিয়ে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানে আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে অবৈধ সব ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

যারা সিদ্ধান্ত মানবে না, তাদের বিষয়ে কী সিদ্ধান্ত নেবেন জানতে চাইলে বেলাল হোসেন বলেন, যেসব ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার লাইসেন্সের জন্য আবেদন করেনি, সেগুলো অবৈধ। আমাদের বেঁধে দেওয়া সময়ের পর যদি নিবন্ধনহীন কেউ কার্যক্রম পরিচালনা করে, তাহলে তার বিরুদ্ধে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেব।

জানা গেছে, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় দেশের বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোর মনিটরিং ও সুপারভিশন বৃদ্ধির বিষয়ে আলোচনা হয়। আলোচনা শেষে কয়েকটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সিদ্ধান্তগুলো হলো

১. আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে দেশের অনিবন্ধিত বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলো বন্ধ করতে হবে। অনিবন্ধিত বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলোর বিরুদ্ধে এ কার্যক্রম চলমান থাকবে। এ কার্যক্রমে স্থানীয় প্রশাসন ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় করতে হবে।

২. যেসব প্রতিষ্ঠান নিবন্ধন গ্রহণ করেছে কিন্তু নবায়ন করেনি, তাদের নিবন্ধন নবায়নের জন্য একটি সময়সীমা দিতে হবে। নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে নবায়ন না করলে সেসব প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম বন্ধ করতে হবে।

৩. বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে অপারেশন করার সময় এনেস্থেসিয়া দেওয়া ও ওটি অ্যাসিস্ট করার ক্ষেত্রে নিবন্ধিত ডাক্তার ছাড়া অন্যদের রাখা হলে সেসব প্রতিষ্ঠান ও জড়িতদের বিরুদ্ধে লাইসেন্স বাতিলসহ কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।

৪. যেসব প্রতিষ্ঠান নতুন নিবন্ধনের আবেদন করেছে তাদের লাইসেন্স দেওয়ার কার্যক্রম দ্রুত শেষ করতে হবে। লাইসেন্স পাওয়ার আগে এসব প্রতিষ্ঠান কার্যক্রম চালাতে পারবে না।

উল্লেখ্য, অধিদপ্তরের হিসাব অনুযায়ী দেশে অনুমোদিত ও আবেদন করা ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সংখ্যা প্রায় ১১ হাজার।

113


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর