শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০২:২২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সিরাজগঞ্জে ‘মা ইলিশ’ ধরার অপরাধে ৩ জেলের কারাদণ্ড অভয়নগরে সার বীজ মনিটারিং কমিটির সভা অনুষ্ঠিত রায়গঞ্জে রাস্তা পাকাকরণও ব্রীজ নির্মান কাজের ভিত্তি স্থাপন করলেন -এমপি ডাঃ আব্দুল আজিজ জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতি পক্ষের হামলায় একজন নিহত, দুইজন আটক কুড়িগ্রাম সদরে ইউপি নির্বাচনে নৌকার মাঝি হলেন যারা ‌সিরাজগঞ্জে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস ২০২১ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনু‌ষ্ঠিত সিরাজগঞ্জে মানাফ স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে- ফ্রি মেডিক্যাল অনু্ষ্ঠিত খোকশাবাড়ী ইউনিয়নের নৌকার মাঝি চেয়ারম্যান রাশীদুল হাসান রশিদ মোল্লার মোটর সাইকেল শোভাযাত্রা পাবনার চাটমোহরে ১১টি ইউনিয়ন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী তালিকা সিরাজগঞ্জের ধানবান্ধিতে রুটস্ সিনেক্লাবের শুভ উদ্বোধন

আবারও অসহায় বৃদ্ধা সোনাবানের পাশে প্রফেসর মেরিনা জাহান কবিতা

মাহফুজুর রহমান মিলন, স্টাফ রিপোর্টার:
  • সময় কাল : বুধবার, ২০ জানুয়ারী, ২০২১
  • ২৬ বার পড়া হয়েছে

স্থানীয় সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী ফারুক হাসান কাহার তার ফেসবুকে সোনাবানের জন্য কেউ একটি লেপ দিবেন এমন স্ট্যাটাস দিলে বিষারয়টি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য প্রফেসর মেরিনা জাহান কবিতার নজরে আসে। তিনি সোনাবানের সার্বিক খোজ নিয়ে তাকে জানাতে বলে কমেন্টস করেন। বুধবার দুপুরে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর পৌর এলাকার বাড়াবিল মধ্যপাড়া প্রফেসর মেরিনা জাহান কবিতার পক্ষ থেকে সাংবাদিক ফারুক হাসান কাহার ও মনিরুল গনি চৌধুরী শুভ্র লেপ, তোষক, চাদর, সোয়েটার, স্যান্ডেল, মোজা, চাল, ডাল, তেল, লবন, আপেল, কমলা, আঙ্গুর, ডালিম, ও নগদ অর্থ সোনাবানের কাছে তুলে দেন। তিনি গত রমজান মাসে ও করোনার শুরুতেও খাদ্যসামগ্রী ও নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করেছেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন মানবাধিকার কর্মী মো. আলতাফ হোসেন, বরাত আলী সুমন, নাজমুল, আরিফ, রাসেল, হাসান, হাসেম প্রমুখ। প্রফেসর মেরিনা জাহান কবিতা বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনাই আমাদের মানুষকে ভালবাসতে শিখিয়েছেন। সোনাবান যতদিন বেচে থাকবে আমি তার পাশে থাকব ইনশাআল্লাহ। ২০ বছর আগে স্বামী মারা যায় সোনাবান খাতুন ডুকলির। অন্যের বাড়িতে কাজ করে পাঁচ মেয়ে ও এক ছেলেকে বড় করেছেন। মেয়েদের বিয়ে হয়েছে। ছেলে তাঁত শ্রমিক বিয়ে করে শ্বশুরবাড়িতে থাকে। মায়ের কোনো খোঁজ নেয় না ছেলে। স্বামী মারা যাওয়ার পর সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর পৌর এলাকার বাড়াবিল মধ্যপাড়া ভাইয়ের বাড়িতে একটি কুড়ে ঘরে বসবাস করছেন সোনাবান। সোনাবানের স্বামী মো. আয়নাল পেশায় ছিলেন তাঁত শ্রমিক। টিভি রোগে তিনি ২০ বছর আগে মারা যান। তারপর থেকেই শুরু হয়েছে সোনাবানের কষ্টের জীবন। স্বামীর মৃত্যুর পর শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে সোনাবান আশ্রয় নেন ভাইয়ের বাড়িতে। সেখানেই ছোট্ট একটি কুড়ে ঘরে তার বসবাস।

Spread the love
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
এই নিউজ পোর্টাল এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি ও দণ্ডনীয় অপরাধ ।  About Us | Contact Us | Terms & Conditions | Privacy Policy
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102