রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ০২:৪৮ পূর্বাহ্ন

এডিপি’র টাকা আত্মসাত-এক ওয়াশ ব্লক’এ দুই প্রকল্প

আশরাফুল হক, লালমনিরহাট :
  • সময় কাল : মঙ্গলবার, ২০ জুলাই, ২০২১
  • ৫২ বার পড়া হয়েছে

জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার গোতামারী উপ-স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের ওয়াশব্লক তৈরী না করে টাকা আত্নসাতের অভিযোগ উঠেছে গোতামারী ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান (প্যানেল চেয়ারম্যান) নারায়ন চন্দ্র বর্ম্মনের বিরুদ্ধে। ওই ওয়াশব্লক তৈরীতে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) থেকে ২ লক্ষ টাকা বরাদ্দ থাকলেও স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ইনচার্জ ও সভাপতিকে ১ লক্ষ টাকা দিয়ে ভুয়া বিল ভাউচার তৈরী করে বাকি টাকা আত্মসাত করা অভিযোগ উঠেছে ওই প্রকল্পের চেয়ারম্যান নারায়ন চন্দ্র বর্ম্মনের বিরুদ্ধে।

গোতামারী উপ-স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের ইনচার্জ ডাঃ রাকিবুল ইসলাম বলেন, স্বাস্থ্য কেন্দ্রের একটি বাউন্ডারী ওয়াল ভেঙ্গে গেলে একটি প্রকল্প তৈরী করে স্বাস্থ্য কেন্দ্রের নিজস্ব তহবিল থেকে প্রায় দেড় লক্ষ টাকা ব্যয়ে ওয়াশব্লক ও বাউন্ডারী ওয়াল নির্মাণ করা হয়। পরবর্তীতে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) থেকেও একটি প্রকল্প তৈরী করে ওই ওয়াশব্লক তৈরীর জন্য ২ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। যার প্রকল্প চেয়ারম্যান হলেন, গোতামারী ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান (প্যানেল চেয়ারম্যান)নারায়ন চন্দ্র বর্ম্মন। কিন্তু তিনি ওয়াশব্লক না করে স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সভাপতি আব্বাছ আলী মিয়ার মাধ্যমে ১ লক্ষ টাকা আমাকে দেন। আমি ওই টাকা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে অ্যাকাউন্টে জমা দেই।

আমরা ওই দুই লক্ষ টাকা থেকে দেড় লক্ষ টাকা চেয়ে একাধিক বার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে অনুরোধ করেছি। কিন্তু তা দেয়নি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নারায়ন চন্দ্র বর্ম্মন। গোতামারী উপ-স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের সভাপতি আব্বাছ আলী মিয়া বলেন, ওই স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ওয়াশব্লক তৈরীর জন্য এডিপি থেকে ২ লক্ষ টাকা বরাদ্দ থাকলেও গোতামারী ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নারায়ন চন্দ্র বর্ম্মন ১ লক্ষ টাকা দিয়েছেন। সেই টাকা আমরা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা দিয়েছি।

এ বিষয়ে গোতামারী ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান (প্যানেল চেয়ারম্যান) নারায়ন চন্দ্র বর্ম্মনের সাথে একাধিকবার ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তিনি এ বিষয়ে কোনো কথা বলতে রাজি হয়নি।

হাতীবান্ধার ইউএনও সামিউল আমিন বলেন, এডিপি’র টাকায় কাজ না করে টাকা আত্মসাতের কোনো সুযোগ নেই। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। আশরাফুল হক, লালমনিরহাট।

Spread the love
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
themesba-lates1749691102