বুধবার, ১২ মে ২০২১, ১১:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া করে ৯ মাসের শিশুকে আছাড় দিয়ে মেরে ফেললেন বাবা! মানুষের ভিরে জায়গা নেই শিমুলিয়া ঘাটে সিরাজগঞ্জে রক্ত কণিকা ব্লাড ডোনেশন এর ঈদ সামগ্রী বিতরণ মানবিক সহায়তা পেল ১ হাজার দরিদ্র ও দুঃস্থ পরিবার আমবাড়ীতে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে উদ্বোধন এমপি উল্লাপাড়া-সলঙ্গা ও রামকৃষ্ণপুর বাসীকে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন হিরো চেয়ারম্যান ঈদের আগাম শুভেচ্ছা জানালেন সভাপতি-সম্পাদক ছাত্রলীগে এর প্রথম সভাপতি দবিরুল ইসলামের প্রতিকৃতি স্থাপনের জন্য স্মারকলিপি প্রদান শাহজাদপুরে সাবেক এমপি চয়ন ইসলাম ও এ্যাড. আব্দুল হামিদ লাবলু’র ঈদ সামগ্রী বিতরণ শাহজাদপুরে উই উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকে দুঃস্থ তাঁতীদের মাঝে ঈদ সামগ্রী ও ইফতার বিতরণ

কৃষকের স্বপ্ন সবুজ ধানের পাতায়

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি:
  • সময় কাল : বৃহস্পতিবার, ২৫ মার্চ, ২০২১
  • ২০ বার পড়া হয়েছে

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় সব মাঠেই এখন বোর ধান ফসলের আবাদ শুরু হয়েছে। চারা রোপনের পর দ্বীতীয় দফায় ধান গাছ পরিচর্যায় ব্যস্ত হয়ে পরেছেন কৃষকেরা।

এরই মধ্যে ধান গাছের পাতাগুলো সবুজে ভরপুর হয়ে উঠছে। যে দিকেই চোখ যায় এখন শুধু মাঠের পর মাঠ সবুজ আর সবুজ। কৃষকেরা এখন জমিতে নিড়ানীসহ ধান গাছের আগাছা পরিস্কার করছেন এবং এর পাশাপাশি পোকা মাড়কের হাত থেকে ধান গাছ রক্ষায় ঔষধ স্প্রে করছে। উপজেলার প্রতিটি মাঠেই এখন সকাল থেকে সন্ধা পর্যন্ত দেখা যায় কৃষক সাথে কৃষাণীরাও ধান গাছ পরিচর্যায় ব্যস্ত। আর এই সবুজ ধানের পাতায় দুলছে কৃষকের স্বপ্ন।

উল্লাপাড়া উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এবারের মৌসুমে বোর ধানের লক্ষ্যমাত্রা ৩০ হাজার ২শ ৪০ হেক্টর। সেখানে লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে ৫০ থেকে ৬০ হেক্টর জমিতে আবাদ বেশি হয়েছে। যা এবার উৎপাদন লক্ষমাত্রাও ছাড়িয়ে যাবে। এ অঞ্চলে ব্রি-২৯ জাতের ধানের আবাদ বেশি হয়ে থাকে। এছাড়াও ব্রী-২৮,ব্রী-৮৯, ব্রী-৮১ এবং (হাইব্রীড) তেজ, হীরা ধানের আবাদ হয়েছে।

উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের গ্রামের মাঠে দেখা যায়, ধান গাছ নিড়াতে কৃষক সাথে কৃষাণীরা দল বেধে মাঠে কাজ করছেন।এসময় দেখা যায় তারা জমির আগাছা পরিস্কার করছেন। কথা হয় জালশুকা গ্রামের কৃষক বরাদ্দ আলীর
সাথে তিনি বলেন, প্রতিবছরের মতো এবারো ভালো ফলন পাবার আশায় ধান গাছ পরিচর্যা করছি। এবারে ধান গাছ অনেক সুন্দর হয়েছে।

উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আরিফ মাহমুদ  বলেন, এখন পর্যন্ত কোন ধরনের পোকার আক্রমন হয় নাই এবং আবহাওয়া অনুকুলে রয়েছে। তার পরেও আগাছা পরিস্কারের পাশাপাশি ব্লাস্ট ও বিপিএইচ সম্পর্কে আমরা প্রতিটি গ্রামে গিয়ে কৃষক কে পরামর্শ দিচ্ছি। তবে আশা করা যায় প্রতি বারের চেয়ে এবারে ফলন ভালো হবে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সুবর্না ইয়াসমিন সুমী বলেন, কৃষক প্রথমে চারা রোপন শেষ করেছে। আর সুন্দর সোনালী ফসল সঠিক ভাবে ঘরে তোলার জন্য তারা দিন রাত পরিশ্রম করছেন। এখন পর্যন্ত তেমন কোন সমস্যা দেখা যায়নি।

Spread the love
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
themesba-lates1749691102