শিরোনামঃ
ভাঙ্গুড়ায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব ফুটবল কাপ টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত সিরাজগঞ্জে ইআরসিসিপি প্রকল্পের উপকার ভোগীদের আয়বৃদ্ধিমূলক কার্যক্রমের আর্থিক সহায়তা প্রদান উল্লাপাড়ায় ইট ভাটা ও হাইওয়ে রেষ্টুরেন্টকে ৬০ হাজার টাকা জরিমানা ভাঙ্গুড়ায় অষ্টমনিষা ইউনিয়ন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি গঠন গাজীপুরে মাদ্রাসা সুপার ও সভাপতির দূর্ণীতির প্রতিবাদে মানববন্ধন পতেঙ্গা কন্টেনার টার্মিনাল চালু হচ্ছে এপ্রিলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অভিযানে দুদিনে বন্ধ ২০ হাসপাতাল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডিতে স্থান পাবেন না ঋণখেলাপিরা ৭ মাসে রেমিট্যান্স এসেছে এক লাখ ৪২ হাজার কোটি টাকা মার্চেই মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী পেতে পারে ৬ মন্ত্রণালয় বাংলাদেশ ব্যাংকে ৫৯ কোটি ডলার রেখে টাকা নিলো ১২ ব্যাংক খাদ্যশস্য ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি আধুনিক করা হচ্ছে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিতে হবে তরুণদের ভুয়া ঋণে জিরো টলারেন্স ভর্তুকির বকেয়া শোধ বন্ডে রিজার্ভ বাড়াতে আসছে অফশোর ব্যাংকিং কালিয়াকৈরে কারখানা শ্রমিকদের উসকানি দিয়ে বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা ছাব্বিশে পাতাল রেল যুগে বাংলাদেশ প্রাথমিকে নিয়োগ পাচ্ছেন ২ হাজার ৪৯৭ শিক্ষক পোশাক রপ্তানিতে স্বপ্ন দেখাচ্ছে ডেনিম

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুরঃ

কোনাবাড়িতে বৃদ্ধ মাকে জবাই করে হত্যা,ছেলে আটক

কলমের বার্তা / ৪০৭ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : বুধবার, ৮ মার্চ, ২০২৩

গাজীপুর সিটি করপোরেশন এর কোনাবাড়ি কলেজগেট এলাকায় মাকে জবাই করে হত্যা করেছে ছেলে। এ ঘটনায় ওই ছেলেকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার (৮ মার্চ) দুপুর ১২ টায় ওই ঘটনাটি ঘটে। নিহত হলেন, গাজীপুরে কাপাসিয়া উপজেলার ঘোষেরকান্দি গ্রামের মৃত খলিলুর রহমানের স্ত্রী জোৎসা বেগম (৭০)। ঘাতক ছেলে হলেন শাখাওয়াত হোসেন মাসুদ (৩০)।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন গাজীপুর মেট্রোপলিটন কোনাবাড়ী জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার দিদারুল ইসলাম।
নিহতের মেয়ের জামাই বজলুর রহমান বলেন, আমার শ্যালক কয়েক বছর ধরে মানসিক ভারসাম্যের রুগী ছিল। গততিন আগে তারা আমার বাসায় আসে। পরে গতকাল তাকে চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। ঢাকা থেকে ফেরার পথে সন্ধ্যা হওয়ায় কাপাসিয়ায় না  গিয়ে আমার বাসায় আসে। আজ দুপুর ১২ টার দিকে আমার শাশুড়ী বারান্দায় পায়চারি করছিল। আমার শ্যালক তখন রুমে ছিল। পরে সে তার মাকে রুমে ডেকে নিয়ে ঘরের দরজা আটকে দেয়। পরে বাসার লোকজন রুমের দরজা খুলতে  বললে সে কোন কথার উত্তর দেয়না। পরে দরজা ভেঙে দেখা যায় বটি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে বসে আছে। পরে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়।
প্রতিবেশী রানা বলেন,আজ দুপুর ১২টার দিকে চিৎকার শুনে বাসায় গিয়ে দেখি দরজা বন্ধ। পরে পাশের রুমের ভিতরে ঢুকে সিলিং দিয়ে ওই রুমে ঢুকেই দেখি ঘরের মেঝোতে বৃদ্ধের গলা কাটা নিথর দেহ পরে আছে। সবুজ নামে আরেক জন প্রতিবেশী বলেন,আমি পাশের ছাদ থেকে জানালা দিয়ে দেখি সে তার মাকে বটি দিয়ে উপর্যপরি কোপাচ্ছে। এক পর্যায়ে দেহ থেকে গলা বিছিন্ন করে ফেলে।
গাজীপুর মেট্রোপলিটন কোনাবাড়ি জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার দিদারুল ইসলাম,বলেন প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে ছেলেটি মানসিক ভারসাম্যহীন। ঘটনাস্থলে ডিবি ও সিআইডির লোকজন রয়েছে। ঘাতক ছেলেকে আটক করা হয়েছে। সে তার মাকে বটি দিয়ে গলা কেটে দেহ থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন করে হত্যা করেছে। এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।
116
Spread the love


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর