সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:১৬ অপরাহ্ন

গাইবান্ধা সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতার মায়ের শাহাদাত বার্ষিকী পালিত

এন এ জোহা,গাইবান্ধা
  • সময় কাল : বুধবার, ১২ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৩১ বার পড়া হয়েছে

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের (ভারপ্রাপ্ত) আহবায়ক, মিসেস আফরোজা বারীর মা মরহুমা আলতাফুন্নেছা এর শাহাদাত বার্ষিকী বামনডাঙ্গা মাষ্টার পাড়ায় অনুষ্ঠিত হয়। এ উপলক্ষে মিলাদমাহ্ফিল,দোয়া খায়ের ও পারিবারিক কবরস্থানে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হয়েছে। পিতা মৃত আশরাফ আলী মাষ্টার,মাতা মৃত আলতাফুন্নেছা,ও ছোট ভাই মরহুম এমপি মন্জুরুল ইসলাম লিটন যেখানে চিরনিদ্রায় শায়িত আছেন।

মায়ের সাহাদাত বার্ষিকীতে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ,সেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীগণ ছাড়াও এলাকার সুধীজন। ইসলাম শীপ বিল্ড্ার্স এর স্বত্বাধিকারী মিসেস আফরোজা বারী সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ এর ( ভারপ্রাপ্ত ) আহ্বায়ক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। (ছোট ভাই) এমপি মন্জুরুল ইসলাম লিটন নির্মমভাবে হত্যার প্রতিবাদে হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে সর্বস্তরের জনসাধারণ ও আওয়ামীলীগ এর সকল অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের নিয়ে দূর্বার আন্দোলন গড়ে তোলেন এবং তখনই জরিয়ে পড়েন রাজনৈতিক অঙ্গনে।

অভিভাবকহীন সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় ভাই হারানো বোনকে শান্তনা দেয়ার ভাষা হারিয়ে ফেলেন সুন্দরগঞ্জ উপজেলার মানুষ ও আওয়ামীলীগ সংগঠন। ভাই হারানো বোনকে শান্তনা দেয়ার ভাষা হারিয়ে ফেলেন এবং সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক এর দায়িত্বে নিয়োজিত করেনও খুজে পান নতুন অভিভাবক। উপ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী হিসেবে উপনির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন তিনি।

একান্ত সাক্ষাৎকারে মিসেস আফরোজা বারী জানান। জামায়াত শিবিরের ঘাঁটি,নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড ও পুলিশ হত্যার মত জঘন্যতম ঘটনা ঘটেছে এই সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় নির্মমভাবে পিস্তলের গুলিতে হত্যা করা হয়েছে আমার ছোট ভাই সংসদ সদস্য শহীদ মনজুরুল ইসলাম লিটনকে। সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদেও জোরদাবীতে জেলা আওয়ামীলীগ আমাকে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ (ভারপ্রাপ্ত) আহবায়ক এর দায়িত্ব দিয়েছেন। দেওয়ার পর থেকে আমি সৎ ও নিষ্ঠার সাথে তা দায়িত্ব পালন করছি। আমি এই শীতে শীতার্থ গরিব,অসহায়, দুস্থ মানুষের মাঝে দশ হাজার কম্বল বিতরণ করেছি এবং কম্বল বিতরণ অব্যহত রয়েছে।

আওয়ামীলীগ পরিবারের সন্তান আমি। বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নৌকা প্রতিক দিয়েছিলেন আমি রাজনীতিতে অতটা বুঝতে পারিনি সেই সময়। বুঝতে পারিনি মানুষের মনের ভাব ও ভাবনা এখন যে ভাবে মানুষের কাছে গিয়ে তাদের ভালোমন্দ বুঝতে পারছি এবং তাদের সেবা দিয়ে যাচ্ছি । সুন্দরগঞ্জ উপজেলার মানুষের মাঝে থেকে যেন আমি ভাবেই সেবা দিয়ে যেতে পারি জননেত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত ২০৪১ সালের ভিশন বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে আমি সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় কাজ কেও যাচ্ছি।

Spread the love

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
এই নিউজ পোর্টাল এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি ও দণ্ডনীয় অপরাধ ।  About Us | Contact Us | Terms & Conditions | Privacy Policy
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102