মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ০১:০১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
গাজীপুরে ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার শাহজাদপুরে আলোকবর্তিকা’র বৃক্ষরোপণ কর্মসূচীর উদ্বোধন নায়িকা পরীমনিকে ধর্ষণচেষ্টার মামলা : নাসির-অমিসহ গ্রেফতার ৫ ভাঙ্গুড়ায় গলায় খাবার আটকে নারীর মৃত্যু সলঙ্গায় ব্রীজের মুখ বন্ধ করে পুকুর খনন করে মাছ চাষ শতাধিক ফসলি জমি ও বসতবাড়িতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি কোনাবাড়ীতে স্কুল ছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার  নতুন সভাপতি পেল দুই সংসদীয় কমিটি সিরাজগঞ্জে যুবলীগের উদ্যোগে- মরহুম মোহাম্মদ নাসিমের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে- খাবার বিতরণ আশুলিয়ায় চেকজালিয়াতি মামলায় গ্রেপ্তার-১ প্রথমবারের মতো পোশাক কারখানায় খোলা বাজারে খাদ্য সামগ্রী বিক্রি শুরু

তাড়াশে অফিস না করেও হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর,বেতন তুলছেন সরকারি কর্মচারী

Reportar Name
  • সময় কাল : রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৩৬ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিনিধি:

সিরাজগঞ্জে তাড়াশ উপজেলায় খাদ্য গুদামের নিরাপত্তা প্রহরী ফারুক মোল্লার বিরুদ্ধে অফিস না করে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে বেতন উত্তোলন করার অভিযোগ উঠেছে। নিরাপত্তা প্রহরী মোঃ ফারুক মোল্লা পাবনা জেলার বেড়া উপজেলার বাসিন্দা এবং তাড়াশ উপজেলা খাদ্য গুদামের কর্মরত।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, সরকারী বিধি অনুযায়ী নিরাপত্তা প্রহরীদের কর্মস্থলে থেকে ডিউটির নিয়ম থাকলেও তিনি প্রায়ই ডিউটি ফাকি দিচ্ছেন। তাড়াশ খাদ্য গুদামে যোগদানের পর থেকেই সে অফিস না করে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে বেতন তুলছেন।

নাম না প্রকাশ্যে ইচ্ছুক একাধিক জন জানান,আগে নিরাপত্তা প্রহরী ফারুক মোল্লা শাহজাদপুর খাদ্য গুদামে ছিলো, সেখান থেকে প্রায় সাত মাস হলো তাড়াশে নিরাপত্তা প্রহরী হিসেবে যোগদান করেছেন। যোগদানের পর থেকেই তার নিজ জেলা পাবনা থেকে মাঝে মাঝে অফিস করতো। বেশির ভাগ দিনই তিনি অফিস ফাকি দেন। সপ্তাহে দুয়েকদিন এসে শুধু হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করেন। এমন অবস্থায় বুধবার ও বৃহম্পতিবার গিয়ে ফারুক মোল্লাকে অফিসে পাওয়া যায় নি। কিন্তু আবার রবিবার সকালে তাড়াশ তার কর্মস্থল খাদ্য গুদামে গিয়ে দেখা যায় ফারুক মোল্লা অফিস করছেন এবং গত দুই দিন হাজিরা খাতায়ও স্বাক্ষর করেছেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ফারুক মোল্লা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি বাড়ি থেকে নিয়মিত অফিস করে আসছি। বুধবার অফিসের কাজে সিরাজগঞ্জে পাঠিয়েছিল স্যার।

তাড়াশ খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ ফরিদুল ইসলাম জানান, ফারুক মোল্লা নিয়মিত পাবনার বেড়া তার নিজ বাড়ি থেকে অফিস করে। কাজের চাপ থাকলে খাদ্য গুদামে থেকে তার ডিউটি করে। অফিস না করে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষরের বিষয়টি অস্বীকার করেন।

Spread the love
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
themesba-lates1749691102