বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০২:০৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বরগুনার বেতাগীতে সম্প্রীতি রক্ষায় ইসলামী আন্দোলনের পরামর্শ সভা লালমনিরহাটে মন্দির পাহাড়ায় ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা সুন্দরগঞ্জের সোনারায় ইউনিয়নে একই পরিবারের ৩ ভাই নৌকা প্রার্থী ! তিস্তার পানি বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত মির্জাপুরে পানির বোতল ও কেক বিতরণ করলেন যুবদল নেতা আজিজ সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে গাইবান্ধায় সম্প্রীতি সমাবেশ ও শান্তি শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত সাঁকোয়া ব্রীজ এলাকায় ইপিজেড স্থাপনের দাবিতে গণসমাবেশ সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে দেশ ব্যাপী সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে শান্তি শোভাযাত্রা কাজিপুরে শান্তি ও সম্প্রতি র‍্যালী চরএলাহী ইউনিয়ন শাখা জাতীয়তাবাদী প্রবাসী কল্যাণ পরিষদের কমিটির অনুমোদন

দীর্ঘ ২০ বছর রাস্তায় ঘুরে পোস্টার থেকে আল্লাহর নাম সংগ্রহ করেন হোসনে আরা

মাহফুজুর রহমান মিলন, স্টাফ রিপোর্টার:
  • সময় কাল : মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৩০ বার পড়া হয়েছে

মাটিতে পরে থাকা পোষ্টার, লিফলেট ও হ্যান্ডবিল থেকে বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম, আল্লাহ্ আকবর ও আল্লাহ সর্বশক্তিমান সহ পবিত্র ধর্মগ্রন্থ আল কুরআনের বিভিন্ন আয়াত এবং আল্লাহ্ তাআলার বিভিন্ন নাম ছিড়ে দীর্ঘ প্রায় ২০ বছর যাবৎ সংরক্ষণ করে চলেছেন হোসনে আরা (৪০) নামের এক মহীয়সী নারী।

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর পৌর শহরের চুনিয়াখালী পাড়ার বাসিন্দা ফুটপাতের কাপড় ব্যাবসায়ী গোলাম মাওলার স্ত্রী হোসনে আরা (৪০) আনুমানিক ২০০০ সাল থেকে আবর্জনা, ড্রেন, নর্দমা, খানাখন্দ ও মাটিতে পড়ে থাকা পোষ্টার, লিফলেট ও হ্যান্ডবিল থেকে আল্লাহর নাম লেখা ও পবিত্র কুরআনের বিভিন্ন আয়াতের অংশ ছিড়ে নিজের কাছে সংরক্ষণ করে। পরে সেগুলো নদীতে ফেলে দেন তিনি। ইতিমধ্যেই ড্রেন ও আবর্জনা থেকে এগুলো সংগ্রহ করার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ইঞ্জিনিয়ার আবদুল্লাহ আল মাহমুদ নামের এক ব্যক্তির ফেসবুকে পোস্ট ভিত্তিতে দেখা যায়। একজন বোরকা পরিহিত নারী আবর্জনা এবং ড্রেন থেকে কিছু সংগ্রহ করছেন। পরে সেই নারীকে জিজ্ঞাসা করা হয় আপনি ড্রেন থেকে কি সংগ্রহ করছেন? উত্তরে নারীটি পোস্টার থেকে ছিড়ে নেওয়া বিসমিল্লাহির রহমানির রাহিম অংশটি দেখিয়ে বলে এগুলো পবিত্র আয়াত ও লেখা। মাটিতে পরে এ সকল আয়াত ও আল্লাহ্ তাআলার নামের অবমাননা হচ্ছে তাই এগুলো দেখে আমার কষ্ট হয়। তাই আমি প্রায় বিশ বছর যাবৎ শহরের বিভিন্ন রস্তায় ঘুরে ঘুরে এগুলো সংগ্রহ করি এবং পরে নদীতে ফেলে দেই। সরেজমিনে চুনিয়াখালী পাড়ার আবু সাঈদের বাড়িতে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন হোসনে আরা ও তার স্বামী। হোসনে আরা জানান, ছোটবেলা থেকেই পারিবারিক ভাবে আমি ধর্মীয় শিক্ষা গ্রহণ করেছি। জ্ঞান হওয়ার পর থেকেই মাটিতে পরে থাকা পোস্টারে বা অন্যান্য কাগজে আল্লাহর নাম ও পবিত্র কুরআনের আয়াত দেখে মনে কষ্ট অনুভব করতাম। একসময় নিজেই সিদ্ধান্ত নেই যে আমার চোখে যেগুলো পরবে সেগুলো আমি সংরক্ষণ করবো। আর এখন প্রতিদিন আমি নিজেই এগুলো সংরক্ষণ করতে বিভিন্ন রাস্তায় ঘুরি।

জানা যায়, হোসনে আরা ও তার স্বামী গোলাম মাওলা নিঃসন্তান। তাদের একটি সস্তান গর্ভে থাকা অবস্থাতেই নষ্ট হয়ে যায়। তাদের বাড়ি পাবনা জেলার চাটমোহর থানার সাইকোলা ইউনিয়নের লাঙ্গল মোড়া গ্রামে। হোসনে আরা বাবার বাড়ি বরগুনায়, তার পিতা নুর মোহাম্মদ মৃধা ছিলেন কৃষক তার মায়ের নাম নুরজাহান খাতুন। হোসনে আরা জানানা, আমার জীবনের একটি ইচ্ছা সেটা হলো পবিত্র হজ্ব পালন ও নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের রওজা মোবারক জিয়ারত করা।

Spread the love
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
এই নিউজ পোর্টাল এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি ও দণ্ডনীয় অপরাধ ।  About Us | Contact Us | Terms & Conditions | Privacy Policy
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102