বুধবার, ১৭ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৩৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার পদোন্নতি প্রাপ্ত হওয়ায় বদলিজনিত বিদায় সংবর্ধনা দিলেন পৌরসভা জাতীয় শোক দিবসে কাজিপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আলোচনা সভা সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় জাতীয় শোক দিবস পালিত বেতাগীতে ইউপি সদস্য শামীম খানের হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন ঝালকাঠিতে কবি লিটন তালুকদারের কাব্য গ্রন্থ “সফেদ ক্যানভাসে রক্তের ছোপ” এর মোড়ক উন্মোচন লালমনিরহাটে অপরাধী’র পক্ষ নিল প্রধান শিক্ষক! লালমনিরহাটে সাংবাদিকদের হামলার প্রতিবাদে ঢাকায় মানববন্ধন! শোক দিবস উপলক্ষে শিয়ালকোল ইউপির চেয়ারম্যান শেখ সেলিম রেজা’র হুইল চেয়ার বিতরণ কাশিমপুরে ককটেল ফাটিয়ে রকেট এজেন্টের টাকা ছিনতাই  মূল্যবান খনিজ আহরণে নজর পেট্রোবাংলার

নাটোরে প্রেমিকের সাথে পালানোজন্য নিজের ছবি এডিট করে ননদের মোবাইলে ইমো থেকে হত্যা করা ছবি পোস্ট

কলমের বার্তা ডেস্ক :
  • সময় কাল : বৃহস্পতিবার, ১৪ মে, ২০২০
  • ১৯৩ বার পড়া হয়েছে।


মোঃরাশেদুল ইসলাম নাটোর প্রতিনিধি.


স্বামীকে ফেলে প্রেমিকের সাথে বিয়ে করে সংসার করার জন্য অভিনব কৌশল অবলম্বন করে স্ত্রী মুক্তি বেগম । পালিয়ে যাওয়ার আগে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে ছবি এডিট করে রাখে। তারপর প্রেমিকের হাত ধরে পালিয়ে যাওয়ার সময় ননদের মোবাইলে ইমো থেকে হত্যা করা হয়েছে এমন ছবি পোস্ট করে এবং একটি খুদে বার্তা পাঠায় । খুদেবার্তায় বলা হয়,“ তুই যেই হোস এই মেয়েটার আত্মীয়দের বলে দিস, আমি ওকে খালাস করেদিয়েছি, ওর সব জেদ আজকে শেষ করছি,। বাড়ি যাচ্ছিল তাই না? আসল বাড়ি পাঠিয়ে দিলাম। লাশটা খুজে নিশ। টাটা।” এরপর বন্ধ করে দেয়া হয় স্ত্রী মুক্তির মোবাইল। ঘটনার আগে চলতি মাসের গত ১১ মে মুক্তি বাড়ি যাওয়ার কথাবলে বড়াইগ্রাম উপজেলার রাজাপুর থেকে নিখোজ হয় মুক্তি। এর পর স্বামী আকমল হোসেন বাদী হয়ে ওই দিনই বড়াইগ্রাম থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে এবং ময়ময়সিংহ জেলা পুলিশের সহায়তায় ১৩ মে মুক্তি ও প্রেমিক আবেদকে ময়ময়সিংহ জেলার ফুলবাড়িয়া উপজেলার দেব গ্রাম থেকে গ্রেফতার করে নাটোরে নিয়ে আসে। বৃহস্পতিবার বেলা একটার দিকে নাটোর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, আকমল হোসেন সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার কুন্দইল গ্রামের মমিন সরদারের ছেলে । অপর দিকে স্ত্রী মুক্তি বেগম একই গ্রামের মমিন প্রামাণিকের মেয়ে। তারা সম্পর্কে মামাত -ফুফাত ভাইবোন। পারিবারিক ভাবে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর আকমল হোসেন স্ত্রী মুক্তি বেগমকে সাথে নিয়ে ঈশ্বরদী শহরে একটি ভাড়া বাসায় থেকে একটি ভ্যাটেনারী ঔষধ কোম্পানী তে চাকুরী করতেন। ঈশ্বররদীর বাসায় ভাড়া থাকার সময় মুক্তির সাথে মোবাইলে ময়ময়সিংহ জেলার ফুলবাড়িয়া উপজেরার দেবগ্রামের আব্দুল মেতালেবের ছেলে সানোয়ার হোসেন আবেদের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়েউঠে। কিন্তু মুক্তি বিবাহিতা বিষয়টি আবিদের কাছে গোপন করে। এজন্য সে নিজেকে হত্যারনাটক করে। সেই নাটকের অংশ হিসেবে মুক্তি চলতি মাসের ১১মে বাড়ি যাওয়ার কথা বলে বরে হয়। এরপর রাজাপুর থেকে ননদের মোবাইলে ইমো মেসেজ ও ছবি পাটিয়ে নিখোঁজ হয়। এরপর মুক্তি সিএনজি নিয়ে হাটিকুমরুল পৌছে। সেখানে আবিদের সাথে মাইক্রোবাসে উঠে তারা পালিয়ে যায় এবং বিয়েকরে স্বামী স্ত্রী রুপে দেবগ্রামে সংসার করতে শুরু করে। কিন্তু বড়াইগ্রাম থানায় মামলা দাযেরের পর বড়াইগ্রাম সার্কেলের এসএসপি হারুন আর রশিদ বিষয়টি পুলিশ সুপার লিটন কুমারকে অবহিত করেন। এরপর চলে হত্যা রহস্য উদঘাটনের অভিযান। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে পুলিশ জানাতে পারে আবিদ এবং মুক্তি ময়ময়সিংহ জেলার ফুলবাড়িয়া উপজেলার দেবগ্রামে বসবাস করছে। পরে ময়ময়সিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সহায়তা নিয়ে নাটোর পুলিশ দেবগ্রাম থেকে জীবিত মুক্তিসহ আবদেকে গ্রেফতার করে নাটোরে নিয়ে আসে। পুলিশ সুপার লিটন কুমারসাহা জানান, গ্রেফতারকৃতদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। প্রেসব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আকরামুল হোসেন ,বড়াইগ্রাম সার্কেলের এসএসপি হারুন অর রশিদ সহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তাবৃন্দ।

Spread the love

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ বিভাগের আরও খবর
এই নিউজ পোর্টাল এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি ও দণ্ডনীয় অপরাধ ।  About Us | Contact Us | Terms & Conditions | Privacy Policy
Design & Developed by RJ Ranzit
themesba-lates1749691102