মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ১০:৩৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মানবিক সহায়তা পেল ১ হাজার দরিদ্র ও দুঃস্থ পরিবার আমবাড়ীতে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে উদ্বোধন এমপি উল্লাপাড়া-সলঙ্গা ও রামকৃষ্ণপুর বাসীকে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন হিরো চেয়ারম্যান ঈদের আগাম শুভেচ্ছা জানালেন সভাপতি-সম্পাদক ছাত্রলীগে এর প্রথম সভাপতি দবিরুল ইসলামের প্রতিকৃতি স্থাপনের জন্য স্মারকলিপি প্রদান শাহজাদপুরে সাবেক এমপি চয়ন ইসলাম ও এ্যাড. আব্দুল হামিদ লাবলু’র ঈদ সামগ্রী বিতরণ শাহজাদপুরে উই উদ্যোক্তাদের পক্ষ থেকে দুঃস্থ তাঁতীদের মাঝে ঈদ সামগ্রী ও ইফতার বিতরণ প্রত‍্যাশিত  সিরাজগঞ্জের” উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ জাগ্রত ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে শতাধিক পথশিশুদের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে রাস্তার পাশে মিলল ভিক্ষুকের মরদেহ

বর এলো ঘোড়ায় চড়ে, কনে পালকিতে – রায়হান -মুক্তি দম্পতির বিয়ে সম্পন্ন

গাজীপুর প্রতিনিধি
  • সময় কাল : বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৮৮ বার পড়া হয়েছে

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে উপজেলায় লতিফপুর এলাকায় বৃহস্পতিবার বিকেলে উৎসবমূখর পরিবেশের মাধ্যমে রায়হান মুক্তি দম্পতির বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। ঘটক রমলা ও সামছুল খন্দকারের ঘটকালীতে সিরাজুল ইসলামের ওকালতীর মাধ্যমে বিয়ে সম্পন্ন হয়। বরের বাড়ি হলেন, গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানার আনন্দ বাজার (কপাটিয়াপাড়া) এলাকার এডভোকেট রহমত আলীর ছেলে ইঞ্জিনিয়ার রায়হান মজিদ প্রকাশ (২৭) তিনি রেজা গ্রুপে ইন্ডাষ্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ার পদে চাকুরি করেন। কর্ণের বাড়ি হলেন, গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর থানার লতিপুর গ্রামের আব্দুল আজিজের মেয়ে মুক্তি আক্তার তৃষ্ণা (২২) তিনি গাজীপুর জয়দেবপুর ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি কলেজের একাউন্টিং বিষয়ে অনার্স ২য় বর্ষের ছাত্রী।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, দুই পক্ষের ঘটকের মাধ্যমে জানুয়ারি মাসের ১ তারিখে কাবিন সম্পন্ন করা হয়। তারপর থেকে বর পক্ষ পরিকল্পনা করে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য তুলে ধরে এই বিয়েটি সম্পন্ন করার। পরে তারা পালকি ও ঘোড়ার মাধ্যমে বিয়ে সম্পন্ন করে আমাদের অবাক করে দিয়েছে। আমরা এলাকাবাসী সত্যি বলতে এই ঐতিহ্য কে কাজে লাগাতে চেষ্টা করব। ভবিষ্যতে এ থেকে আমাদের যারা ইয়াং জেনারেশন আছে তারা জানতে পাড়লো পুরাতন ঐতিহ্য টাকে, চিনতে পাড়লো, বুঝতে পাড়লো সব মিলিয়ে আমরা গ্রামবাসীর পক্ষ থেকে বরের পরিবার ও আত্মীয় স্বজনদেরকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।


বরের পরিবার সূত্রে জানা যায়, এটা তাদের কোনো পূর্ব পরিকল্পনা ছিল না কিন্তু হঠাৎ করে পরিবারের মাঝে থেকে এই পরিকল্পনা করে এবং যখন কাবিন সম্পন্ন করা হয়। তখন সেখানে কথা হয় আমরা কর্ণেকে পালকির মাধ্যমে তুলে নিব। গ্রামের একটি ঐতিহ্য সম্পর্কে বর্তমান সমাজ যাতে জানতে পারে। তাছাড়া অনেক ঐতিহ্য গুলো দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে। যা বর্তমান সমাজ এসব সম্পর্কে জানে না। আমাদের মত অনেকে যদি এসকল ঐতিহ্যকে তুলে ধরে তা হলে এগুলো হারাতে পারবে না।
এলাকাবাসীর পক্ষে গিয়াস উদ্দিন জানান, আমরা অনেকেই পালকি দেখেছি কিন্তু বর্তমানের যুবক-যুবতীরা, ছেলে মেয়েরা পালকি সম্পর্কে অবগত না বরপক্ষ আজকে পালকি এবং ঘোড়ার মাধ্যমে বিয়ে সম্পন্ন করে। আমাদেরকে অনেক আনন্দ দিয়েছে এবং পুরনো ঐতিহ্যকে তুলে ধরেছে। এটা সত্যিই অনেক ভাল হয়েছে।
বরের বাবা মুঠোফোনে জানায়, যে আমাদের পরিবার থেকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে আমার ১টি মাত্র ছেলে তাই আমি চেয়ে ছিলাম যে গ্রামের কোন ঐতিহ্য তুলে ধরে আসার ছেলেকে বিয়ে করাবো। যার মাধ্যমে বর্তমান সমাজ সবাই বুঝতে পারে যে পালকি প্রয়োজনীয়তা আছে। আর সব মিলিয়ে সবাইকে অভাক করে দেয়ার জন্য এই আয়োজন করা।

কর্ণের বাবা আজিজুর রহমান জানান, গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য তুলে ধরে বরপক্ষ আমার মেয়েকে তুলে নিয়েছে এতে আমরা খুব আনন্দিত এবং বর পক্ষের সকলকে ধন্যবাদ জানাই। আমরা সবাই সত্যি বলতে অনেক খুশি হয়েছি। তাছাড়া কখনই ভাবতেই পারিনি যে আমার মেয়েকে পালকিতে দিয়ে তার স্বামীর বাড়িতে বিদায় দিতে পাড়বে।
সংস্কৃতিক প্রেমী জাহাঙ্গীর আলম জানান, এ অনুষ্ঠান বর্তমান সমাজকে বুঝেয়ি দিতে পেরেছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য বিশেষ করে পালকি দিয়ে বউ তুলে নেয়া আবার বিভিন্ন খেলাধুলা বিশেষ করে হা-ডুডু যা আমাদের মাঝ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে।এসব কিছু তুলে ধরা আমাদের দরকার।
কালিয়াকৈর পৌরসভা ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফারুক হোসেন জানান, আমাদের মাঝে থেকে বিভিন্ন ঐতিহ্য হারাতে বসেছে। যা সম্পর্কে বর্তমানের সমাজের মানুষ গুলোই জানে না। আজকে এই বিয়ের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বরপক্ষের এ আয়োজনের সকলে দেখলেন পালকি দেখলেন। যা একটি শিক্ষনীয় বিষয়। আমি বরপক্ষকে আমার পক্ষ থেকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি এরকম একটি আয়োজনের ব্যবস্থা করার জন্য।

Spread the love
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
themesba-lates1749691102