শিরোনামঃ
মোদির সঙ্গে বৈঠকে ভবিষ্যৎ সম্পর্কের রূপরেখা ঘোষণা বাণিজ্য বাধা দূর করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর সব বাড়ির মালিককে করের আওতায় আনতে নতুন পরিকল্পনা রেমিট্যান্সে ভর করে বাড়ল রিজার্ভ হাঁড়িভাঙা আম ও সবজি সংরক্ষণে দেশের প্রথম বিশেষায়িত হিমাগার হবে মিঠাপুকুরে ঢাকার সঙ্গে প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা চুক্তিতে আগ্রহী রোম। সৌদিপ্রবাসীদের বৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠানোর আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে বাংলাদেশের সব অর্জন বদলে যাচ্ছে বিসিএস পরীক্ষা সলঙ্গায় মরহুম সেরাজুল ইসলাম ও আবু বক্কার চেয়ারম্যানের স্মৃতি স্বরণে ফুটবল টুর্নামেন্ট সলঙ্গার ধুবিল মেহমানশাহী উচ্চ বিদয়ালয়ে পরিক্ষার আগেই অর্থ বানিজ্যের অভিযোগ বিয়ে বাড়িতে উচ্চ আওয়াজে বক্স বাজাকে কেন্দ্র করে আহত-১০ বেনাপোলে ঈদের ছুটিতে ভারত ভ্রমণ, ফেরায় স্থল বন্দরে যাত্রীদের চাপ গরিবের বিচার নেই-গরিবের বিচার ভগবানই করবে! উল্লাপাড়ায় কৃষি মেলার উদ্বোধন সিলেট-সুনামগঞ্জে বন্যাদুর্গতদের পাশে আনসাররা কৃষিতে বকেয়া ভর্তুকি : ১০ হাজার কোটির বন্ড ইস্যু করছে সরকার ঈদকে ঘিরে রেমিট্যান্স বেড়েছে দেশে শেখ হাসিনার দিল্লি সফরের তিন প্রধান কারণ শার্শায় ট্রাকের ধাক্কায় ভ্যানচালক নিহত

ভারতে পাচার হওয়া ০৮ কিশোরীকে বেনাপোল ইমিগ্রেশনে হস্তান্তর

কলমের বার্তা / ১৮ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : মঙ্গলবার, ২১ মে, ২০২৪

মনির হোসেন বেনাপোল প্রতিনিধি :ভাল কাজের প্রলোভনে দালালদের মাধ্যমে ভারতে পাচারের শিকার হওয়া ৮ জন বাংলাদেশী কিশোরীকে দীর্ঘ এক বছর পর বেনাপোল দিয়ে চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের কাছে হস্তান্তর করেছে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ। কিশোরী এরা বিভিন্ন মেয়াদে (৬ মাস থেকে ১ বছর) কারাভোগ শেষে ভারত সরকারের দেয়া বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে বেনাপোল হয়ে দেশে ফিরেছে।

আজ সোমবার ২০ মে সন্ধ্যায় ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে এসব পাচার হওয়া কিশোরীদের হস্তান্তর করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন ভারতের কলকাতার বাংলাদেশস্থ উপ হাইকমিশনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পরিচালক বিদোষ চন্দ্র বর্মন, সহ বিজিবি, পুলিশ ও দুইদেশের মানবাধিকার সংস্থার কর্মকর্তারা।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পরিচালক বিদোষ চন্দ্র বর্মন বলেন, এই কিশোরী
বিভিন্ন সময়ে ভারতে পাচার হয়ে যায়। পরে দু‘দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যোগাযোগের মাধ্যমে আজ তাদেরকে দেশে ফেরত আনা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, এখানে অনেক এনজিও সংস্থাও কাজ করছে তাদের দেশে আনার ব্যাপারে।
ফেরত আসারা হলো,
১। মিনা বেগম ,( ৪২) স্বামী: শামীম হোসেন গ্রাম: ভাইনা, পোস্ট: যশোর থানাঃ যশোর, জেলাঃ যশোর।
২। শিউলি বেগম ,( ৩১) স্বামী: সাদির , গ্রাম : যা গুপ্ত, পোস্ট সাহেবপুর,থানা- শিবপুর জেলা- নরসিংদী।
৩।  লিপি খাতুন ( ৩৫)  পিতাঃ হাসান মোল্লা’ গ‍্রামঃ কলসি, পোস্ট: দোয়া খোলা’ থানাঃ বাঘারপাড়া, জেলাঃ যশোর।
৪। সুখজান খান ( ৩৮) পিতাঃ সুলতান আলী বিশ্বাস গ্রামঃ কুশাডাঙ্গা, পোস্ট: পানি করিয়া ‘থানাঃ কলারো, জেলাঃ সাতক্ষীরা।
৫। ঝুমা ( ২৮) পিতাঃ গোলাম হোসেন গ্রামঃ মাইকপাড়া ‘পোস্ট: লোহাগড়া ,থানাঃ লোহাগড়া , জেলাঃ নড়াইল ।
৬। মনিরা( ১৯), পিতা: মহব্বত আলী গ্রামঃ নতুন চরদৌলত, পোস্ট: নতুন চরদৌলত থানাঃ কালকিনি জেলাঃ মাদারীপুর ।
৭। ফারহানা আক্তার ( ১৬) পিতাঃ আবুল কাশেম, গ্রামঃ কোলা পাটকাঠি, পোস্ট: কোলা পাটকাঠি, থানাঃ দিগুলিয়া, জেলাঃ খুলনা
৮।  মোসাম্মৎ নাজমা ( ৩৬) পিতাঃ আব্দুস সামাদ আলী গ্রামঃ ভাটিয়ালি, পোস্ট: দক্ষিণপাড়া থানাঃ কলারোয়া, জেলাঃ সাতক্ষীরা।
উপরোক্ত ব্যক্তিদের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ কর্তৃক বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের নিকট ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে হস্তান্তর করেন।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান বিশ্বাস বলেন, দালালদের প্রলোভনে পড়ে এরা পাসপোর্টবাদে বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে ভারতে পাচার হয়। এরপর ভারতের পুলিশের কাছে তারা আটক হয়ে বিভিন্ন শেল্টার হোমে ছিলেন আদালতের মাধ্যেমে। আজ তাদের হস্তান্তর করেন ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ। ইমিগ্রেশনের আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদের বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হবে। , রাইটস যশোর ৮ জনকে ও মহিলা আইনজীবি সমিতি গ্রহন করবে তাদের পরিবারের কাছে পৌছে দিতে।
এনজিও সংস্থা জাষ্টিস এন্ড কেয়ার এর এরিয়া কোয়ার্ডিনেটর মুহিত বলেন, এরা ভারতের পশ্চিবঙ্গ রাজ্যে পাচার হয়ে বিভিন্ন ঝুকিপুর্ন পেশায় জড়িয়ে পড়ে। এর পর সেদেশের পুলিশের কাছে আটক হয়ে আদালতের মাধ্যমে ভারতের হাওড়া, ২৪ পরগণা জেলা, নদীয়া, কুচবিহার, কলকাতার শেল্টার হোমে থাকে প্রায় ৬ মাস থেকে এক বছর। দুই দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের চিঠি চালাচালির মাধ্যমে আজ তারা বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যমে বেনাপোলে হয়ে দেশে ফিরেছেন। ফেরত আসাদের যশোর নিজ নিজ শেল্টারহোমে নিয়ে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

 

24


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর