রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৮:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

মির্জাপুরে মাকে মারধর করে জখম করল ছোট ছেলে

Reportar Name
  • সময় কাল : বৃহস্পতিবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২০
  • ৪৯৫১ বার পড়া হয়েছে

মাসুদ পারভেজ, স্টাফ রিপোর্টার :

টাঙ্গাইল মির্জাপুর বাঁশতৈলের কটামারা এলাকায় মাকে মারধর করে আহত করলেন তার ছোট ছেলে সুজন( ২২)।ভুক্তভোগী ওই মায়ের নাম রাশেদা বেগম(৪৫),স্বামী :কিয়াম উদ্দিন, গ্রাম: কটামারা। রাশেদা বেগমের ২ ছেলে ও ১ মেয়ে। সুজন তার মেঝ সন্তান।সুজন তার স্ত্রীকে নিয়ে শশুর বাড়ী ঘর জামাই থাকেন। আজ বৃহস্পতিবার (৩০ ই এপ্রিল ২০২০ ইং তারিখ) দুপুর আনুমানিক ১ টার সময় সুজন হঠাৎ করে তার নিজ বাড়িতে গিয়ে মা রাশেদা বেগমকে একা পেয়ে লাঠি দিয়ে উল্টো পাল্টা পিটাইতে থাকেন। পরে রাশেদা বেগমের মেয়ে তার চিৎকার শুনে এগিয়ে গেলে তাকেও মারধর করে। মারধর শেষ হলে সুজন পালিয়ে যান।

এমন অমানবিক মারধরের কারণ জানতে চাইলে মা রাশেদা বেগম বলেন, আমি নাকি ওর সন্তান নষ্ট করেছি, এই বলেই সুজন আমাকে লাঠি দিয়ে উল্টো পাল্টা পিটাইতে থাকেন।তিনি আরো বলেন, আমি ওর কাছে আমার জীবন ভীক্ষা চাইছি, তাও ও আমারে পিটাইছে। আমি এর সঠিক বিচার চাই।

রাশেদা বেগমের স্বামী কিয়াম উদ্দিন বলেন, আমি ঘটনার সময় বাড়িতে ছিলাম না।তবে সুজন মানুষের কথা শুনে আজকে ওর মাকে পিটাইল। আমি এর বিচার চাই এবং আল্লাহর কাছেও জানিয়ে রাখছি।

এ বিষয়ে সুজনের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয় নি।

এ বিষয়ে মির্জাপুর বাঁশতৈল পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ জনাব সাইফুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে এখনো কোন অভিযোগ পাই নি, তবে অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
themesba-lates1749691102