শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ০৯:৪৯ পূর্বাহ্ন

রাঙ্গাবালীতে থানায় অভিযোগ করায় বাবা ছেলেকে মারধরের অভিযোগ 

সঞ্জিব দাস,গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
  • সময় কাল : শনিবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০২১
  • ২৮ বার পড়া হয়েছে
রাঙ্গাবালীতে  থানায় অভিযোগ করায় বাবা ছেলেকে মারধরের অভিযোগ উঠেছ।
আহতরা হলেন রাঙ্গাবালী উপজেলার ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের কোড়ালিয়া গ্রামের মাঝের বাড়ির আবু তালেব হাওলাদারের ছেলে মোঃ ইউনুস হাওলাদার(৭৩) ও তারই ছেলে  কিরন হাওলাদার(২৫)। গতকাল শুক্রবার ১৫ জানুুুুয়ারি এ ঘটনা ঘঠে। এলাকাবাসী তাদের উদ্ধার করে  গলাচিপা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। ইউনুস হাওলাদার জানান, শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে মোল্লার বাজার ওয়ার্কশপ এর দোকানে গ্রিলের মাল ঝালাই দেওয়ার জন্য ঘটনাস্থলে যাই। ওই সময় একই গ্রামের সেলিম হাওলাদারের তিন ছেলে ঝিলাম হাওলাদার, ঝিনুক হাওলাদার ও সজিব হাওলাদার একত্রিত হয়ে আমাকে ও আমার ছেলেকে মারধর করে।
পরে এলাকাবাসী আমাদেরকে উদ্ধার করে স্থানীয় কমিনিউটি ক্লিনিকে নিয়ে প্রার্থমিক চিকিৎসা শেষে রাতে গলাচিপা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। গলাচিপা স্বাস্থ কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক  শাহরিয়া বলেন, আমার চিকিৎসাধীনে ইউনুস হাওলাদার ও কিরন হাওলাদার ভর্তি আছে। দুজনের শরীরেই একাধিক সেলাই দিতে হয়েছে। তবে তারা উভয়েই আশংকা মুক্ত আছে আছেন।
ইউনুস হাওলাদারের ছেলে কিরণ হাওলাদার জানান,গত তিন মাস আগে আমাদের একটি ছাগলের একটি চোঁখ উপড়ে ফেলায় আমরা রাঙ্গাবালী থানায় ওদের তিন ভাইয়ের নামে একটি অভিযোগ দায়ের করি।  অভিযোগ করার কারনে ওরা আমাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে ও আমার বাবা কে মারধর করে।
ইউনুস হাওলাদারের স্ত্রী আলেয়া বেগম বলেন, আমার স্বামীকে ও আমার ছেলেকে ছাগলকে কেন্দ্র করে মেরে ফেলতে চেয়েছিল। আল্লাহর রহমতে তারা বেচে গেছে।
এ বিষয় নিয়ে ঝিলাম হাওলাদের কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে বিষয়টি তারা এড়িয়ে যান।
এ ব্যাপারে ছোটবাইশদিয়া  ইউপি সদস্য টিপু হওলাদার ও ইউপি চেয়ারম্যান হাজী মান্নান মিয়া জানান, বিষয়টি আমরা শুনেছি দু পক্ষকে ডেকে মিমাংসার ব্যবস্থা করব।
রাঙ্গাবালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দেওয়ান জগলুল হাসান বলেন, এবিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। ষভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্তা নেওয়া হবে।
Spread the love
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
themesba-lates1749691102