শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০৪:১৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজ গ্রামের মসজিদে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করলেন মকবুল হোসেন এম পি প্রধানমন্ত্রী’র নির্দেশে কৃষাণী’র ধান কেটে দিচ্ছে ছাত্রলীগ নেতা! গভীর রাতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে সেমাই চিনি বিতরণ করলেন অমৃত মোদক ঠাকুরগাঁওয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত আজ ঈদ এতিম শিশুদের সাথে ঈদ উদযাপনে ঠাকুরগাঁওয়ের ‘৯৮ ব্যাচ’ ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশ সুপারের ঈদ শুভেচ্ছা | কলমের বার্তা  হাজী আব্দুস সাত্তারের নিজস্ব অর্থায়নে- ১২’শ দুঃস্থ, অসহায় ও কর্মহীনদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরন পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ওসি সেলিম মালিক জয়পুরহাট সম্মিলিত শ্রমিক ফেডারেশনের ঈদ উপহার

রাজাকারের বংশধর নতুন করে ফণা তুলেছে- আব্দুর রহমান

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • সময় কাল : শুক্রবার, ৯ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৮ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়ামের সদস্য আব্দুর রহমান বলেছেন, রাজাকারের বংশধররা নতুন করে ফণা তুলেছে। তারা স্বাধীনতা বিকিয়ে ধর্মীয় উস্কানি দিয়ে এই ধরনের ঘটনায় লিপ্ত রয়েছে। তাদের বিচার বাংলার মাটিতে করতে হবে। এই ফণা ধরা বিষধর সাপের বিষদাত ভেঙ্গে দিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের মানুষ জীবন বাজি রেখে মুক্তিযুদ্ধ করেছে এবং স্বাধীনতা ছিনিয়ে এনেছে। এই দেশে আমরা সাম্প্রদায়িক শক্তি দেখতে চাই না। এদের বিরুদ্ধে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। ঐক্যবদ্ধ প্রতিহত করতে হবে।
বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) ফরিদপুরের সালথা উপজেলা পরিষদে স্থানীয় আওয়ামীলীগ আয়োজিত এক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

এর আগে গত ৫ এপ্রিল ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় লকডাউন কার্যকর করা নিয়ে স্থানীয় জনতার মাঝে গুজব ছড়িয়ে প্রায় চার ঘণ্টা ব্যাপী তাণ্ডব ও ধ্বংসলীলা চলে। এসময় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার গাড়ি, পেট্রোল পাম্প, সালথা থানা ও কর্মকর্তাদের বাসভবনসহ বেশ কিছু স্থাপনা ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করা হয়। ক্ষতিগ্রস্ত ওই এলাকায় বৃহস্পতিবার পরিদর্শন করে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র নেতারা।

পরিদর্শনকালে আবদুর রহমান আরও বলেন, আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বের বুকে মাথা উচু করে দাঁড়িয়েছে। মানুষের ভাত ও ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছে। কিন্তু উন্নয়ন অগ্রযাত্রা বাধাগ্রস্ত করতে এক শ্রেনীর ধর্ম ব্যবসায়ী ও স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। এদের স্থান বাংলার মাটিতে দেয়া যাবে না। এদের সন্ত্রসী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। এবং বঙ্গবন্ধুকন্যার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে হবে।

প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান স্থানীয় একজন হেফাজত নেতার (মাওলানা আকরাম হোসেন) নাম উল্লেখ করে বলেন, তিনি হেফাজত ও বিএনপি জামাতের স্বার্থ রক্ষার জন্যই এ হামলার নেতৃত্ব দিয়েছেন।

সমাবেশে অন্যদের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, এস এম কামাল, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবল সাহা, সহ সভাপতি শামীম হক, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মাসুদ হোসেন, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক ঝর্না হাসান, মহিলা সম্পাদিকা আইভি মাসুদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শামসুল হক ভোলা মাস্টার, পৌর মেয়র অমিতাব বোসসহ জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

পরে নেতৃবৃন্দ ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার, পুলিশ সুপার মোঃ আলিমুজ্জামনকে সাথে নিয়ে ক্ষতিগ্রস্থ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়, বাসভবন ও ভূমি অফিস পরিদর্শন করেন।

Spread the love
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
themesba-lates1749691102