শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০৪:১৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজ গ্রামের মসজিদে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করলেন মকবুল হোসেন এম পি প্রধানমন্ত্রী’র নির্দেশে কৃষাণী’র ধান কেটে দিচ্ছে ছাত্রলীগ নেতা! গভীর রাতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে সেমাই চিনি বিতরণ করলেন অমৃত মোদক ঠাকুরগাঁওয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত আজ ঈদ এতিম শিশুদের সাথে ঈদ উদযাপনে ঠাকুরগাঁওয়ের ‘৯৮ ব্যাচ’ ঠাকুরগাঁওয়ে পুলিশ সুপারের ঈদ শুভেচ্ছা | কলমের বার্তা  হাজী আব্দুস সাত্তারের নিজস্ব অর্থায়নে- ১২’শ দুঃস্থ, অসহায় ও কর্মহীনদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরন পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ওসি সেলিম মালিক জয়পুরহাট সম্মিলিত শ্রমিক ফেডারেশনের ঈদ উপহার

রায়গঞ্জে জোরপূর্বক বসত বাড়ি দখলের চেষ্টা প্রান বাচাতে বাড়ি ছেড়ে মুরগীর খামারে বসবাস

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:
  • সময় কাল : বুধবার, ৩ মার্চ, ২০২১
  • ৯৫ বার পড়া হয়েছে

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জের অন্যের বতস বাড়ি জোর পূর্বক দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। রায়গঞ্জ উপজেলার সোনাখাড়া ইউনিয়নের কলিয়া গ্রামে মফিজ উদ্দিনের বসত বাড়ি একই গ্রামের মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে মো: জিন্নাহ সরকার গং এর বিরুদ্ধে জোর পূর্বক বসত বাড়ি দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয় ও মামলা সূত্রে জানাযায়, রায়গঞ্জ উপজেলার সোনাখাড়া ইউনিয়নের কলিয়া গ্রামের মফিজ উদ্দিন ও একই গ্রামের মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে জিন্নাহ সরকার গং এর বাড়ির জায়গা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। জালাল উদ্দিন গং সিরাজগঞ্জ আদালতে বাটোয়ারা মামলা দায়ের করেন। বাটোয়ার মামলা নং-৫৪/২০০৯। পরে বিজ্ঞ আদালত মামলার পর্যবেক্ষন করেন ৯ টি র্ধায্য তারিখে পিএইচ সাপেক্ষে সময়ের আবেদন করেন। কিন্তু আদালতে খরচের টাকা দাখিল না কারায় এবং বাটোয়ারা মামলাটি বাদি পক্ষের তদবির অভাবে বিনা খরচায় গত ১৪/০৫/২০১৪ ইং তারিখে খারিজ করে দেন আদালত।

পরবর্তীতে গত ০৪/১২/২০১৯ ইং তারিখে মৃত জালাল উদ্দিনে ছেলে জিন্নাহ সরকার গং মফিজ উদ্দিনের বসত বাড়ি জোর পূর্বক দখলের চেষ্টা করে।

বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় মাতব্বরা একাধিক বার মিমাংসা করার চেষ্টা করে ব্যার্থ হওয়ায় গত ১০/১২/২০১৯ ইং তারিখে সিরাজগঞ্জ আদালতে মফিজ উদ্দিন বাদি হয়ে জিন্নাহ সরকারসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে ফৌজদারি কার্য বিধি আইনে ১৪৪ ধারায় এম আর ৩৭৩/২০১৯ নং মামলা দায়ের করেন। আদালত রায়গঞ্জ উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা , সোনাখাড়া ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা ও রায়গঞ্জ থানা কর্মকর্তার সরেজমিন তদন্ত প্রতিবেদ এবং উভয় পক্ষের আইনজিবিদের বক্তব্য পর্যালোচনা করে মফিজ উদ্দিনের পক্ষে রায় প্রদান করেন। সেই মফিজ উদ্দিনের ভোগ দখলকৃত সম্পত্তিতে ০৫/০১/২০২১ ইং তারিখ থেকে ৬০ দিন প্রতিপক্ষকে প্রবেশ নিষেধ করেন। কিন্তু প্রতি পক্ষরা ১৪৪ ধারা অমান্য করে বার বার মফিজ উদ্দিনের ভোগ দখলকৃত সম্পত্তি জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা করে।

সম্প্রতি গত শুক্রবার সকালে মফিজ উদ্দিনগং তাদের ভোগ দখলকৃত বসত বাড়ি সংস্কার করতে গেলে জিন্নাহ্ গং বাধা প্রদান করে। পরে রায়গঞ্জ থানা পুলিশ উভয় পক্ষের মধ্যে শান্তি স্থাপনে জন্য থানায় আহবান করে। মফিজগং তাদের সম্পত্তির কাগজপত্র নিয়ে থানা গেলেও জিন্নাহ্ গং থানার আহবানে সারা দেয়নি। বিষয়টি নিয়ে যে কোন সময় রক্তক্ষয়ি সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে।

মফিজ উদ্দিনের ছেলে আনাস উদ্দিন বলেন, আমরা গত শুক্রবার আমাদের বাড়ি সংস্কার কাজ করতে গেলে জিন্নাহ্ গং আমাদের বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিয়ে সংস্কাকার কাজ বাধা দেয়। জিন্নাহ্ গং এর হুমকিতে জীবন বাচাতে বর্তমানে নিজ বাড়ি রেখে অন্য বাড়িতে মুরগীর খামারে বসবাস করছি।

এর আগে জিন্নাহ্ গং আমাদের জায়গায় জোর পূর্বক বাড়ি ঘর নির্মান করতে আসে আমি ও আমার পরিবারের লোক জন বাধা দিলে আমাদের ব্যাপক মারপিট করে। আমরা আদালতে মামলা দায়ের করলে জিন্নাহ্র ভাই রাশিদুল ইসলামকে আদালত জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

এবিষয়ে জিন্নাহ সরকার বলেন,কলিয়া মৌজার ৩০৮ নং দাগে ৪৯ শকত জমির মধ্যে আমার দাদা এনসাব আলী গং এর নামে ২৫ শতাংশ ও দাদার ভাই মোজাহার আলী গং এর নামে ২৪ শতাংশ রেকর্ড হয়। কিন্তু রাস্তা সংলগ্ন মোজাহার আলীর ছেলে মফিজ উদ্দিন গং জোর করেই বাড়ি ঘর নির্মান করে বসবাস করে আসছে। কিন্তু কোন অংশের সাম উল্লেখ নাই । আমরা আমাদের জায়গায় যেতেই পারি। এক প্রশ্নে উত্তরে বলেন ১৪৪ ধারা আমার অমান্য করি নাই। ১৪৪ ধারা রায়ের বিরুদ্ধে আদালতে আমরা রিভিশন দায়ের করেছি।

রায়গঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম জানান, সোনাখাড়া ইউনিয়নের কলিয়া গ্রামের একটি বসত বাড়ি নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছিল। পুলিশ গিয়ে উভয় পক্ষকে বুঝিয়ে শান্ত করে। উভয় পক্ষকে শান্তির লক্ষে থানায় ডাকা হলে মফিজ গং থানায় আসলেও জিন্নাহ্ গং থানায় হাজির হয়নি। পরবর্তীতে থানায় কোন পক্ষ যোগাযোগ না করায় বিষয়টা কি অবস্থায় আছে আমার জানা নেই।

Spread the love
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
themesba-lates1749691102