• মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১০:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
লালমনিরহাটে বাংলাদেশি এক যুবককে ধরে নিয়ে গেছে বিএসএফ ম্যানেজারকে বেঁধে রেখে টাকা দোকানের চাবি ছিনতাইয়ের অভিযোগ! কাজিপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে ৩ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন কোনাবাড়িতে অটো‌রিক্সা চালককে পি‌টিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার -২ বাংলাদেশ ও চীনের বন্ধুত্বপূর্ণ পথচলা হয়ে উঠুক আরো শক্তিশালী বিএনপি এদেশের সাম্প্রদায়িকতার বিশ্বস্ত ঠিকানা: ওবায়দুল কাদের আজ খুলছে অফিস-আদালত-ব্যাংক-বিমা হাওরে বিশ্বের দীর্ঘতম আলপনা সমৃদ্ধ ও স্মার্ট ভবিষ্যৎ নির্মাণে একযোগে কাজ করার আহ্বান অর্থ প্রতিমন্ত্রীর বাংলাদেশি জাহাজ ছিনতাই: সোমালিয়ার ৮ জলদস্যু গ্রেপ্তার ইরান-ইসরাইল উত্তেজনা নিরসন ও গাজায় হত্যাযজ্ঞ বন্ধ চায় বাংলাদেশ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসলামিক ফাউণ্ডেশন সিরাজগঞ্জের আয়োজনে বাংলা নববর্ষ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজের আয়োজনে পহেলা বৈশাখ উদযাপন উপলক্ষ্যে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত শিয়ালকোল ভাষা সৈনিক মোতাহার হোসেন তালুকদার যুব পরিষদের অফিস উদ্বোধন কারাগারে আটক চেয়ারম্যান প্রার্থীর মুক্তির দাবিতে মেয়ের সংবাদ সম্মেলন নতুন স্বপ্ন, প্রত্যাশা আর সম্ভাবনা নিয়ে এলো ১৪৩১ পয়লা বৈশাখে র‌্যালি করবে আওয়ামী লীগ চালের বস্তায় লিখতে হবে মূল্য-জাত ইসরায়েলের কোনো বিমান বাংলাদেশে অবতরণ করেনি: বেবিচক ৩১ দিন পর অক্ষত অবস্থায় মুক্ত জাহাজসহ জিম্মি থাকা ২৩ নাবিক

রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশে উদ্বেগ জানিয়ে ভারতকে বাংলাদেশের চিঠি

কলমের বার্তা / ১৬৯ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : সোমবার, ২৩ মে, ২০২২

ভারত থেকে বাংলাদেশে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশে উদ্বেগ জানিয়ে নয়াদিল্লির কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়েছে ঢাকা। রোববার (২২ মে) ভারত সরকারের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে এ চিঠি দেওয়া হয় বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়।

সূত্রের ভাষ্য, বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে সম্প্রতি বাংলাদেশে ঢুকছে রোহিঙ্গারা। এ বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়ে এবং রোহিঙ্গাদের এ ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত অনুপ্রবেশ বন্ধ করতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে ভারতীয় কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

জানা যায়, মিয়ানমারের রাখাইন থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের একটি অংশ ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে আশ্রয় নিয়েছিল। কিন্তু সম্প্রতি সেদেশ থেকে এই রোহিঙ্গারা স্বদেশে ফিরে না গিয়ে বাংলাদেশে চলে আসছে বলে খবর মিলছে।

এ প্রসঙ্গে গত ১৭ মে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেন, সম্প্রতি ভারত থেকে দুর্ভাগ্যবশত অনেক রোহিঙ্গা আসছে। এরা ২০১২ সালের দিকে ওখানে (ভারতে) গিয়েছিল। এতোদিন ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে আশ্রয় নিয়ে ছিল। এখন তারা আত্মীয়-স্বজনদের কাছে শুনেছে যে বাংলাদেশে এলে খাওয়া-দাওয়া খুব ভালো পাবে। জাতিসংঘ ওদের খুব ভালো খাবার দেয়। কক্সবাজারে (শরণার্থী শিবিরে) যারা আছে, তারা খুব সুখে আছে। সেজন্য ভারতে থাকা রোহিঙ্গারাও দলে দলে আসছে।

মিয়ানমারে সেনা নিপীড়ন, ধর্ষণ ও হত্যাযজ্ঞের মাঝে প্রাণ বাঁচাতে সাগর ও সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ২০১৭ সালের ২৫ আগস্টের পর নতুন করে প্রায় সাড়ে সাত লাখের মতো রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। এর আগে থেকে আরও প্রায় সাড়ে তিন লাখের মতো রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশ অবস্থান করছিল। সব মিলিয়ে বর্তমানে ১১ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বসবাস বাংলাদেশ।

এরইমধ্যে বিভিন্ন সময়ে তাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার আশ্বাস দিলেও প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় মিয়ানমার সরকারের কোনো আন্তরিকতা লক্ষ্য করা যায়নি।

99


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর