বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০৫:২৪ পূর্বাহ্ন

লালমনিরহাটে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে মুজিব শতবর্ষ ই-সেবা ক্যাম্পেইন ২০২০ পালিত

Reportar Name
  • সময় কাল : সোমবার, ১২ অক্টোবর, ২০২০
  • ৬৪ বার পড়া হয়েছে

রনজিৎ কুমার রায়, লালমনিরহাট:

“বাড়ছে সেবার বহর, গ্রাম হবে শহর” এই প্রতিপাদ্যে লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাট ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে মুজিব শতবর্ষ ই-সেবা ক্যাম্পেইন ২০২০ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (১২ অক্টেবর) দুপুরে কুলাঘাট ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা সায়হান সৈকত-এর আয়োজনে ইউনিয়ন পরিষদে এ ক্যাম্পেইনের আয়োজন করা হয়। কুলাঘাট ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী এর সভাপতিত্বে কেক কেটে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন অতিথিরা।

সারাদেশের ন্যায় রবিবার (১১ অক্টোবর) থেকে মুজিব শতবর্ষে লালমনিরহাটের কুলাঘাট ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে মাসব্যাপী ই-সেবা ক্যাম্পেইন কার্যক্রম চালু হয়েছে। তৃণমূলের সেবার বাতিঘর হিসেবে পরিচিত ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার।

কুলাঘাট ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা মোঃ সায়হান সৈকত এ উপলক্ষ্যে দিন ব্যাপি কর্মসূচীর অংশ হিসেবে কেক কাটা, আলোচনা সভা, লিফলেট বিতরণ, মোবাইলের মাধ্যমে প্রচারনা হিসাবে ক্ষুদ্রু বার্তা, ভয়েস ম্যাসেজ কল, ডিজিটাল বাংলাদেশ নিয়ে ভিডিও প্রদর্শনীর আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, লালমনিরহাট সদর উপজেলার ভূমি সহকারী কমিশনার জি আর সারোয়ার।

বিশেষ অতিথি লালমনিরহাট সদর উপজেলার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর এর সহকারী প্রোগ্রামার আশরাফুল আলম, কুলাঘাট ইউনিয়ন পরিষদ-এর সচিব আব্দুস সালাম মন্ডল, কুলাঘাট ইউনিয়ন ভূমি অফিস-এর উপ সহকারি কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম, কুলাঘাট উচ্চ বিদ্যালয় এর প্রধান শিক্ষক শাহজাহান আলী জুয়েল সহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষজন এতে উপস্থিত ছিলেন।

কুলাঘাট ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা মোঃ সায়হান সৈকত, বলেন প্রধানমন্ত্রীর দেখানো স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশ কে বাস্তবে রুপান্তর করতে পেরে ও ডিজিটাল সেন্টারের মাধ্যমে সেবার বাতিঘর হিসেবে পরিচিত কুলাঘাট ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার করতে পেরে গর্বিত মনে করি এবং সেই সাথে ধন্যবাদ জানাই এটুআইয়ের সকল স্যারদের যাদের কারণে আজ ডিজিটাল বাংলাদেশের ডিজিটাল সৈনিক হিসাবে গড়ার জন্য।

প্রসঙ্গত জনগণের দোরগোড়ায় সরকারি বেসরকারি সকল সেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১০ সালের ১১ নভেম্বর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে দেশের ৪ হাজার ৫ শ ১ টি ইউনিয়ন পরিষদে একযোগে ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্র উদ্বোধন করেন সেটি বর্তমানে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার নামে পরিচিত যা তৃণমূল পর্যায়ে ২০০ টিরও বেশি সরকারি বেসরকারি সেবা প্রদান করে আসছে এবং যুক্ত হতে চলছে আরও বেশ কিছু সেবাও। ফলে বেঁচে যাচ্ছে সময়, কমছে দূরত্ব ও খরচ এবং বাস্তবে রূপ নিচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ ।

Spread the love
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
themesba-lates1749691102