রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৭:৩১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :

সলঙ্গায় জালিয়াতি করে অন্যের জমি নিজের নামে লিখে নেয়ায় বিপাকে অসহায় পরিবার

Reportar Name
  • সময় কাল : মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট, ২০২০
  • ৫৯ বার পড়া হয়েছে


সলঙ্গা (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি :
চাঁদার টাকা না দেওয়ায় সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার সলঙ্গায় জালিয়াতি করে অন্যের জমি নিজের নামে লিখে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এব্যাপারে ভুক্তভোগি অসহায় পরিবারটি আদালতে একটি অভিযোগ দাখিল করার পর রায় পেলেও প্রভাবশালী ভুমিদস্যুর হাত থেকে জমি উদ্ধার করতে পারছে না। জমি উদ্ধারের জন্য সমাজ পতিদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছে অসহায় পরিবারটি।

জানাগেছে,সলঙ্গা থানা চক পাড়া চৌবিলা গ্রামে মৃত আব্দুল করিম শেখের ছেলে হোসেন আলী শেখের জমি একই গ্রামের মৃত আজগর আলীর ছেলে হোসেন আলী একই নাম হওয়ায় জালিয়াতি করে চৌবিলা মৌজায় সিএস খতিয়ান ৩১,দাগ নং২১৫৯ এবং আরএস খতিয়ান ৮৬৩,দাগ নং ৩৯৪৩, ৭০শতক জমি উপরে আদালতে মামলা করেন। পরে উক্ত মামলায় সিএস রেকর্ড সুত্রের মালিক মৃত আব্দুল করিম শেখের ছেলে হোসেন আলী শেখ আদলত সিএস রেকর্ড বহালা রাখেন। মৃত আজগর আলীর ছেলে ভুয়া হোসেন আলী মামলায় হেরে যায়। সিএস রের্কড পূর্বে থেকে মৃত করিম শেখের ছেলে হোসেন আলী গং জমিটি ভোগ দখল করেন।

এদিকে , উক্ত জমিটির উপরে সিরাজগঞ্জ যুগ্ম জেলা জজ ১ম আদালতে চকপাড়া চৌবিলা গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেল ফিরোজ উদ্দিন গং বিবাদী করে একই গ্রামের মৃত তফের আলীর ছেলে জিল্লুর রহমান গং যোগসাজসে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ০৩/২০১৮। মামলায় মৃত আব্দুল করিম শেখের ছেলে হোসেন আলী শেখের অংশীদারদের কোন পক্ষ না করে মামলা দায়ের করেন। উক্ত মামলাটি একতরফা রায়নেন ফিরোজ উদ্দিন গং। কিন্তু জমিটি ফিরোজ উদ্দিন গং ও জিল্লিুর রহমানের নয়। পকৃত পক্ষে সিএস রেকর্ড সুত্রে মালিক মৃত আব্দুল করিম শেখের ছেলে হোসেন আলী শেখ। হোসেন শেখের মৃত্যুর পর তার ছেলে বছির শেখ তার এক ছেলে ও দুই মেয়ে রেখে মারা যায়।

ফিরোজ উদ্দিন গং মৃত আব্দুল করিম শেখের ছেলে হোসেন আলী শেখের অংশীদারদের কাছে জমিটি ফিরে দেবার জন্য ৫ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা দাবি করে । দাবীকৃত টাকা না দেওয়ায় ২০ শতক জমি বেদখল করে ফিরোজ গং।

আলহাজ¦ মো: শাহজাহান আলী মাতব্বর জানান, জমিটি অনেক আগে থেকেই ভোগদখল করে আসছে আব্দুল করিম শেখের ছেলে হোসেন শেখ তার ছেলে বছির শেখ তার আব্দুল শেখ, মেয়ে ছারা খাতুন ও নুরজাহান। কিন্তু কিছু দিন আগে কতিপয় লোক জন জমিটার ২০ শতাংশ জায়গা বেদখল করে। পকৃতপক্ষে জমিটি মালিক বছির শেখের ছেলে ও মেয়েরা।

জমির মালিক আব্দুল শেখ জানান, আমার জন্মে পূর্ব থেকে আমার বংশধররা জমিটি ভোগ দখল করে আসছে। কিন্তু জমিটির উপরে কিছু দিন পূর্বে ফিরোজ গংরা ৫ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা দাবি করে। তাদের দাবীকৃত টাকা না দেবার কারনে আমাদের জমির ২০ শতাংশ জমি বেদখ করে। বর্তমানে আমার আদালতে জমিটি উদ্ধারের জন্য মামলা দায়ের করেছি। আদলতের আশুহস্তেক্ষেপ কামনা করছি।

Spread the love
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
themesba-lates1749691102