সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৫৫ অপরাহ্ন

সলঙ্গা থানা ছাত্রলীগের কার্যালয়ে তালা দুই পক্ষের সংঘর্ষের আশঙ্কা

নিজস্ব প্রতিবেদক :
  • সময় কাল : শনিবার, ৮ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৭৫ বার পড়া হয়েছে

সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় থানা ছাত্রলীগের ৭৪ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে দুপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে তিনজন আহত হয়। এঘটনায় সলঙ্গায় দুই পক্ষের উত্তেজনা বিরাজ করছে।

মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারী) এ ঘটনায় সেই দিনই সলঙ্গা থানা আওয়ামীলীগ ও থানা পুলিশ, ছাত্রলীগ কার্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেন।

জানাযায়, সলঙ্গা থানা ছাত্রলীগের কমিটি গত ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ সালে ১ বছরের জন্য কমিটি অনুমোদন দেয় সিরাজগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ। কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার পরে এখনও পুর্নাঙ্গ কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয় নাই। এর পর থেকেই বিভিন্ন ইউনিয়নের কমিটি গঠন নিয়ে বির্তক শুরু হয়। এর মধ্যে রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নে দুইটি কমিটি ঘোষণা করা হয়।

একটিতে সভাপতি সৌরভ তালুকদার ও সম্পাদক সাবির অন্য দিকে আলমগীর হোসেন কে সভাপতি ও আবু সুফিয়ান আকাশ কে সম্পাদক করে দুইটি কমিটি ঘোষনা হয়।

এর ধারাবাহিকতায় থানা ছাত্রলীগের সভাপতি তাওহীদুর রহমান বাচ্চু বাদী হয়ে সিরাজগঞ্জ জেলা জর্জ কোটে একটি মামলা দায়ের করেন।

নলকা ইউনিয়নে রাতের আধারে পকেট কমিটি দেওয়া হয় এমন অভিযোগ রয়েছে।

সলঙ্গা থানার আওতায় ৬ ইউনিয়ের ভিতর বির্তকৃত ভাবে ৩টি ইউনিয়নে কমিটি দিলেও গত ১ বছর ৫ মাস পেরিয়ে গেলেও এখনও বাকী ৩ ইউনিয়নে কমিটি দিতে পারে নাই সলঙ্গা ছাত্রলীগের সভাপতি/ সম্পাদক।

আর এই সকল ঘটনাকে কেন্দ্র করেই সলঙ্গা থানা ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সলঙ্গা কলেজ শাখার ছাত্রলীগের সভাপতি বুলবুল হাসান লিটন বলেন,অযোগ্য নেতৃত্বের কারনেই সলঙ্গা ছাত্রলীগের কার্যক্রম স্থবির হয়ে পরেছে। অতি-দ্রুত এই কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে যোগ্য নেতৃত্বের মাধ্যমে নতুন কমিটির দাবি জানান।

নলকা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি কাওছার হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল সাত্তার বলেন, নলকা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের কমিটি আমাদের সাথে কোন প্রকার আলোচনা না করেই কমিটি গঠন করা হয়। লোক মুখে শুনেছি টাকার বিনিময়ে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রিয়াদুল কবির হান্নান বলেন, অযোগ্য নেতৃত্বর কারনে থানা ছাত্রলীগের পুর্নাঙ্গ কমিটি করতে না পারায় ও রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের ২টি কমিটি গঠন করার কারনে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। জেলা কমিটির সভাপতি/ সম্পাদকের সাথে আলোচনা করে এর দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সলঙ্গা থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান লাভু জানান, সলঙ্গা থানা ছাত্রলীগের কমিটির মেয়াদ উত্তির্ণ ও রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা এবং পদ বাণিজ্যসহ নানা অপকর্মের কারণে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে এ ঘটনা ঘটেছে ।

সলঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল কাদের জিলানী জানান,সংঘর্ষের কথা শুনে সেখানে উপস্থিত হয়ে দুই পক্ষকে সরিয়ে দিয়ে পরিবেশ নিয়ন্ত্রন করা হয়েছে। এর পরে যদি কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটে এবং কোন পক্ষ যদি অভিযোগ করে তাহলে আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Spread the love

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ বিভাগের আরও খবর
এই নিউজ পোর্টাল এর কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি ও দণ্ডনীয় অপরাধ ।  About Us | Contact Us | Terms & Conditions | Privacy Policy
Design & Developed by Freelancer Zone
themesba-lates1749691102