শিরোনামঃ
কাজিপুরে আওয়ামী লীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত সিরাজগঞ্জে বালুবাহী ট্রাকের চাকায় পৃষ্ট হয়ে এক বৃদ্ধের মৃত্যু ! সিরাজগঞ্জে আওয়ামীলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ‘প্লাটিনাম জয়ন্তী’ পালন বেনাপোলে বিশাল র‍্যালি ও জনসভা প্রাচীনতম সংগঠন আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সলঙ্গায় আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত ৭ দিন বন্ধের পর বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি শুরু সাড়ে ১০ হাজার কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক ডিসেম্বরে সাগর ছুঁয়ে নামবে বিমান অর্থ পাচার থামানোর তাগিদ এমপিদের আজ থেকে পুনরায় চলবে মৈত্রী এক্সপ্রেস অ্যান্টিভেনমের ঘাটতি না রাখতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নির্দেশ বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যকার সুসম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে ‘স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন-শপথ নিয়ে আ.লীগের সৃষ্টি’ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অনন্য উচ্চতায় আওয়ামী লীগ বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক এগিয়ে নেওয়ার প্রত্যয় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বাংলাদেশ আওয়ামী দেশ দিয়েছে ঠিকানা দিয়েছে; তানভীর শাকিল জয় (এমপি) মোদির সঙ্গে বৈঠকে ভবিষ্যৎ সম্পর্কের রূপরেখা ঘোষণা বাণিজ্য বাধা দূর করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর সব বাড়ির মালিককে করের আওতায় আনতে নতুন পরিকল্পনা

বর্তমান সরকারের আমলে ভালো আছেন সংখ্যালঘু সম্প্রদায়

কলমের বার্তা / ৭৮ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : শুক্রবার, ১৪ জুলাই, ২০২৩

রাজধানীতে এক সেমিনারে বক্তারা বলেছেন, সংখ্যালঘুরা তুলনামূলক শেখ হাসিনা সরকারের আমলে অনেক ভালো অবস্থানে আছেন। দেশে সংখ্যালঘুদের ওপর দমন-পীড়নের হার নিয়ন্ত্রণে বর্তমান সরকার অনেক তড়িৎ কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করছে। ২০০১ সালে এ ধরনের পদক্ষেপ দেখা যায়নি। অথচ এ সরকারের আমলে সংখ্যালঘু নির্যাতন নিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে যেসব ভুল তথ্য প্রকাশিত হচ্ছে, যা অনাকাঙ্ক্ষিত ও দুরভিসন্ধিমূলক।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে ‘বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের পরিস্থিতি: সমস্যা ও উত্তরণ’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। মানবাধিকার সংগঠন এমপাওয়ারমেন্ট থ্রু ল অব দ্য কমন পিপল (এলকপ) এই সেমিনারের আয়োজন করে। এলকপ’র পক্ষ থেকে একটি গবেষণাপত্র উপস্থাপন করেন আরেফিন মিজান। এতে বাংলাদেশে সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট তুলে ধরা হয়। এতে আরও বলা হয়, বর্তমান সরকার সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে দমন-পীড়নের হার নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা নিচ্ছে, যা ২০০১ সালে অনুপস্থিত ছিল। গবেষণা প্রতিবেদনে বেশ কয়েকটি সুপারিশ তুলে ধরা হয়। এ সুপারিশমালা আমলে নিয়ে সরকারকে দ্রুত বাস্তবায়নে পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানানো হয়।

সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য দেন এলকপ’র চেয়ারম্যান ও জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান। আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আইনজীবী রানা দাস গুপ্ত, বাংলাদেশ খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নির্মল রোজারিও, বাংলাদেশ বুদ্ধিস্ট ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ভেন থেরো সুনন্দপ্রিয়, বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং এবং এলকপের নির্বাহী পরিচালক ব্যারিস্টার তাপস কান্তি বল।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর রানা দাস গুপ্ত বলেন, ব্রিটিশ আমল থেকে এ অঞ্চলের সংখ্যালঘুদের ওপর একটি নির্দিষ্ট প্রক্রিয়ায় সহিংসতা ঘটেছে। সরকারের উচিত এর পেছনের সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সংখ্যালঘুদের ক্ষমতায়নের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা।

ভেন থেরো সুনন্দপ্রিয় বলেন, ‘সংখ্যালঘুরা তুলনামূলক বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের আমলে অনেক ভালো অবস্থানে আছেন।’ অন্যদিকে পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি যত দ্রুত সম্ভব বাস্তবায়নে সরকারকে সচেষ্ট হওয়ার আহ্বান জানান সঞ্জীব দ্রং।

আলোচনায় নির্বাচনকালীন ধর্মীয় ও জাতিগত সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেন বক্তারা। তারা সব ধরনের সংখ্যালঘুদের সমমর্যাদা ও নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য রাজনৈতিক দলগুলোকে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানান। পরে মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, এনজিও, আই-এনজিও এবং মানবাধিকার কর্মীরা।

সমাপনী বক্তব্যে অধ্যাপক মিজানুর রহমান বলেন, আন্তর্জাতিক মহলের একটি অংশ বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের পরিস্থিতি সম্পর্কে বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচারে সচেষ্ট রয়েছে। বাংলাদেশ খুবই কম সংখ্যক দেশের মধ্যে অন্যতম, যে দেশ সংখ্যালঘুদের সমস্যা চিহ্নিত করে এবং তা সমাধানের জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। সেমিনারে জাতি, গোষ্ঠী, ধর্ম, জাতি নির্বিশেষে সকল মানুষের বসবাসের জন্য দেশকে একটি উন্নত স্থান হিসেবে গড়ে তোলার আহ্বান জানানো হয়।

108


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর