• বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০৪:৫৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
বেনাপোল সীমান্তে বিএসএফের গুলি বর্ষণের শঙ্কা, সতর্কতায় বিজিবির মাইকিং খুলনা বিভাগে শপথ নিলেন দ্বিতীয় ধাপে জয়ী চেয়ারম্যানগণ সিরাজগঞ্জে ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত দাবি হামার একটাই ঠাকুরগাঁওয়ে বিমানবন্দর ও মেডিকেল কলেজ চাই জয়পুরহাটে রাস্তা কেটে সরু করায় দূর্ভোগে অর্ধশতাধিক পরিবার বেনাপোলে ঈদকে ঘিরে টুং-টাং শব্দে ব্যস্ত কামার শিল্পীরা! শিবরাম আদর্শ পাবলিক স্কুলে ফল উৎসব পালিত দেশের চেয়ে কম দামে বিদ্যুৎ দিচ্ছে নেপাল খুলছে বাংলাদেশের তৃতীয় বৃহত্তম শ্রমবাজার, বৈধতা পাবেন ৯৬ হাজার বাংলাদেশি ব্যাংকের খরচে কর্মকর্তাদের বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা বিদেশি বিনিয়োগ ও অপারেশনাল মডেলের নবযুগের সূচনা মালয়েশিয়া যেতে না পারাদের টাকা ফেরতের চেষ্টা টিসিবির জন্য ৫৩৭ কোটি টাকার ডাল-তেল কিনবে সরকার ডেঙ্গু মোকাবিলায় ৫২ কোটি টাকা বরাদ্দ পুলিশের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে কাজ করা হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আর্থ-সামাজিক উন্নয়নেও কাজ করছে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র লোকাল অ্যাডাপটেশন চ্যাম্পিয়ন্স অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করলেন প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের ঘর তৈরি করে দেব সলঙ্গা নলকা ইউনিয়নে ঈদ উপহার বিতরণ ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি আজিজুল বারী হেলাল

লালমনিরহাটে বুড়িমারী স্হলবন্দরে শ্রমিকদের সংঘর্ষে সাংবাদিক আহত-১০

কলমের বার্তা / ৭১ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : বুধবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

আশরাফুল হক, লালমনিরহাট: লালমনিরহাটের বুড়িমারী স্থলবন্দরে শ্রমিকদের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে সাংবাদিকসহ আহত হয়েছেন ১০জন।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়াশেল নিক্ষেপ করে। কয়েক ঘন্টা ধরে অবরুদ্ধ রয়েছেন ইউএনও নুরুল ইসলাম। ফলশ্রুতি যান চলাচল বন্ধ রয়েছে পাটগ্রাম বুড়িমারী সড়কে। মঙ্গলবার(১২ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত অবরুদ্ধ রয়েছেন পাটগ্রাম ইউএনও নুরুল ইসলাম।

স্থানীয় ও শ্রমিকরা জানান, লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী স্থলবন্দরের পন্য লোড আনলোডে শ্রমিকদের পাওনা টাকা শ্রমিক সর্দাররা পকেটস্থ করেছেন বলে দীর্ঘ দিন ধরে সেই পাওনা আদায়ে আন্দোলন করে আসছেন সাধারন শ্রমিকরা। বেশ কয়েক দফায় মানববন্ধন আর অবরোধ করেন শ্রমিকরা। প্রতিবারই আশ্বাস দেয়া হলেও সাধারন শ্রমিকদের ঘাম ঝড়ানো মজুরীর বকেয়া টাকা পরিশোধ করা হয়নি। ফলে ভুসে উঠেন সাধারন শ্রমিকরা। সোমবার(১১ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে পন্য লোড আনলোড বন্ধ করেন শ্রমিকরা। ফলে বিপাকে পড়েন ব্যবসায়ী আর ভারতীয় ট্রাক চালকরা। পাওয়া আদায় ও শ্রমিক সংগঠনের নির্বাচনসহ বেশ কয়েকটি দাবি নিয়ে মঙ্গলবার(১২ সেপ্টেম্বর) দ্বিতীয় দিনের মত পন্য লোড আনলোড বন্ধ রেখে আন্দোলন চালিয়ে যান সাধারন শ্রমিকরা। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সাধারন শ্রমিকদের উপর হামলা চালায় সর্দার গ্রুপের লোকজন। পরে তা লাঠিসোটা আর দেশি অস্ত্রের সংঘর্ষে রুপ নেয়। চলে দুই গ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া। দুই গ্রুপেই পাথর ছুড়ে মারে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে। এক পর্যয়ে তাদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ টিয়ারসেল ও রাবার বুরেট ছুড়ে বলে দাবি স্থানীয়দের। পাথরের আঘাতে সাংবাদিকসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। তাদেরকে প্রথমে পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে আশংকা জনক অবস্থায় তাদের ৩জনকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

খবর পেয়ে দুপুর ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে চলে যান পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) নুরুল ইসলাম। তাকে উদ্দিন সংঘ নিরোধ অফিসে দুপুর ১২টা থেকে অবরুদ্ধ করে রাখেন শ্রমিকরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের চেষ্টা করছে পুলিশ, ইউএনও এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সহকারী কমিশনার(ভুমি)।

পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) নুরুল ইসলাম বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়নি। আমি নিজেও দুপুর ১২টার পর থেকে অবরুদ্ধ রয়েছি। এসি ল্যান্ডসহ পুলিশ বাহিরে চেষ্টা করছে। কি পরিমান রাবার বুলেট বা টিয়ারসেল নিক্ষেপ করা হয়েছে তা এ মুহুর্তে বলতে পারছি না। বিষয়টি ঊর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে।

 

 

87


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর