• বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০১:৪৫ পূর্বাহ্ন

পদ্মার চরে রিভারসিটি গড়ে তোলা হবে

কলমের বার্তা / ১৬ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : শনিবার, ৬ জুলাই, ২০২৪

পর্যটনের জন্য পদ্মার চরে ‘রিভার সিটি’ গড়ে তোলা হবে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী ফারুক খান। গতকাল বিকালে রাজশাহীর কালেক্টরেট মাঠে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড আয়োজিত বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যালের রাজশাহী পর্বের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘রাজশাহীর মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন গতকাল (বৃহস্পতিবার) আমার বাসায় গিয়েছিলেন। পদ্মা নদীতে যে চর জেগে আছে, সেটা নিয়ে আমার সঙ্গে কথা বলেছেন। সেখানে পর্যটনের জন্য একটা রিভার সিটি করা যায়। আমি তাকে কথা দিয়েছি। সবার সহযোগিতায় সেটা আমরা করতে চাই। রাজশাহীতে পর্যটন মোটেল আছে। এটাকে আমরা ফাইভ স্টার মোটেল হিসেবে রূপান্তর করতে চাই।’

রাজশাহীর হযরত শাহমখদুম (র.) বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করা হবে বলেও জানান ফারুক খান। তিনি বলেন, ‘রাজশাহীর বিমানবন্দরকে আমরা আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করার পরিকল্পনা করছি। এটি হলে রাজশাহীর আম বিশে^র বিভিন্ন দেশে চলে যেতে পারবে। অন্যান্য কৃষিপণ্যও রপ্তানি করা যাবে।

মন্ত্রী আরো বলেন, ‘রাজশাহীর ঐতিহ্য রেশম। এই রেশমের উন্নয়নে যা যা করা দরকার, তার সবই আমাদের সরকারের করা উচিত। ঢাকায় ফিরেই আমি প্রধানমন্ত্রীকে বিষয়টি জানাব। রাজশাহীর আম অনেক দূর চলে গেছে। তারপরও আমের আরও গবেষণা দরকার।’

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোকাম্মেল হোসেন। স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মুহাম্মদ জাবের। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান বাদশা, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান একেএম আফতাব হোসেন প্রামানিক, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প ফাউন্ডেশনের চেয়ারপারসন ড. মাসুদুর রহমান, বিভাগীয় কমিশনার ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর, পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) আনিসুর রহমান, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) কমিশনার বিপ্লব বিজয় তালুকদার, রাজশাহীর জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল প্রমুখ।

‘আমের স্বর্গে আমন্ত্রণ’ শীর্ষক তিন দিনব্যাপী এই ফেস্টিভ্যালে দেশের নানা প্রান্তের ঐতিহ্যবাহী জিনিসের শতাধিক স্টল রয়েছে। এছাড়া পর্যটনের জন্য দর্শনীয় স্থানের প্রদর্শনী করা হচ্ছে।

20
Spread the love


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর