ভুটানকে উড়িয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

কলমের বার্তা / ৪১৮ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : বুধবার, ৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

ঘরের মাটিতে চলমান সাফ অনূর্ধ্ব-২০ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে দুই ম্যাচে সমান একটি করে জয় ও ড্রয়ে চার পয়েন্ট করে নিয়ে ফাইনালের পথে এগিয়ে ছিল স্বাগতিক বাংলাদেশ ও ভারত। এদিকে আগের ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে প্রথমার্ধে পিছিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত নাটকীয়ভাবে ৩-১ গোলের জয়ে ফাইনালে উঠে গেছে নেপালের মেয়েরা। এতে ভুটানের বিপক্ষে ম্যাচে বাংলাদেশের লক্ষ্য দাঁড়ায় অন্তত ড্র। এমন সমীকরণ নিয়ে মাঠে নেমে ভুটানের বিপক্ষে শুরু থেকেই আক্রমণ চালিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা। এর ফলও পেয়ে যায় টাইগ্রেসরা, ৫-০ গোলে ভুটানকে উড়িয়ে ফাইনেল পা রাখে গোলাম রাব্বানী ছোটনের শিষ্যরা।

ফাইনালে যাবার লড়াইয়ে এক পয়েন্টের লক্ষ্যে ভুটানের বিপক্ষে ঘরের মাঠে নামে বাংলাদেশের মেয়েরা। খেলার শুরুতে কিছুটা এলেমেলো খেললেও সময়ের সাথে-সাথে গুছিয়ে খেলতে থাকে টাইগ্রেসরা। যার ফলে আকলিমা খাতুনের নৈপূন্যে ম্যাচের ২২ মিনিটে প্রথম গোলের দেখা পেয়ে যায় বাংলাদেশ। অপরদিকে ভুটানে ডি-বক্সে ট্যাকেলের শিকার হন বাংলাদেশের ফরোয়ার্ড। ফলে স্পট কিক পায় মেয়েরা। তবে পেনাল্টি থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন শাহেদা আক্তার রিপা। এর ৭ মিনিট পরেই ভুটানের জালে বল দিয়ে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন শামসুন্নাহার জুনিয়র। প্রথমার্ধে বাকি সময়ে আর কেউ গোলের দেখা না পেলে ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে স্বস্তি নিয়ে বিরতিতে যায় বাংলাদেশ।

দ্বিতীয়ার্ধে আরও বেশি আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠেন বাংলাদেশের মেয়েরা। তবে ফিনিশিংয়ের কমতি লক্ষ্য করা যাচ্ছিল টাইগ্রেসদের। কিতু ৫৩তম মিনিটে শামসুন্নাহার ভুটানের জালে আরেকটি বল জড়িয়ে ব্যবধান বাড়িয়ে সাথে নিজের নামে পাশে দ্বিতীয় গোল লেখেন এই ফুটবলার। এরপর ম্যাচের ৬০ মিনিটে বাংলাদেশর হয়ে হালি পূরন করেন আকলিমা। এর এক মিনিট পরেই ভুটানের জালে শেষ পেরেক টুকে দিয়ে জয় নিশ্চিত করে শামসুন্নাহার। এতে নিজের হ্যাট্রিক ও পূরন করে ফেলেন এই ফুটবলার। ম্যাচের বাকি সময়ে আর গোলের দেখা না পেলে ৫-০ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে গোলাম রাব্বানী ছোটনের শিষ্যরা।

একই ভেন্যুতে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি নেপালের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশের মেয়েরা।

378
Spread the love


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর