• সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৪১ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
ভাঙ্গুড়ায় জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক প্রতিযোগিতা অনুষ্টিত আগামী চার মাসে প্রাথমিকে নিয়োগ হবে ১০ হাজার শিক্ষক স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে সরকার সঠিক পথেই এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও উন্নয়ন অনেক দেশের অনুপ্রেরণা ২৪ দিনে দেশে রেমিট্যান্স এলো ১৮ হাজার কোটি টাকা বস্ত্রখাতে বিশেষ অবদান, সম্মাননা পাচ্ছে ১১ সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান সম্পর্কের নতুন অধ্যায় শুরু করতে আগ্রহী বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সংরক্ষিত ৫০ নারী আসনে সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী সম্মানী ভাতা বাড়ল কাউন্সিলরদের ‘শেখ হাসিনার বাংলাদেশে প্রাণিজ প্রোটিনের অভাব হবে না’ বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে জাতীয় ও আগরতলা প্রেসক্লাবের নেতাদের শ্রদ্ধা সিরবজগঞ্জে চালক-হেলপার হত্যা,মৃত্যুদন্ড পলাতক আসামি গ্রেফতার সিরাজগঞ্জে জেলা পর্যায়ে প্র‌শিক্ষণ প্রাপ্ত ইমাম সম্মেলন অনুষ্ঠিত সিরাজগঞ্জে কৈশোর মেলা অনুষ্ঠিত গাজীপুরে পূর্ব বিরোধের জেরে যুবক খুন সলঙ্গায় যুবককে কুপিয়ে ইজিবাইক ছিনতাই, ৩৬ ঘন্টা পর উদ্ধার আটক ১ নারী এমপিরা সংসদে যোগ দিচ্ছেন চলতি অধিবেশনেই টোলের আওতায় আসছে দেশের সাত মহাসড়ক আলোচনায় মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণ পর্যটক টানতে কুয়াকাটায় হচ্ছে বিমানবন্দর

নিজস্ব প্রতিবেদক:

অন্যের প্ররোচনায় কাজিপুরের যুবলীগ নেতার মানহানীর চেষ্টা, অভিযোগকারীর স্বীকারোক্তি

কলমের বার্তা / ৩৪২ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : রবিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২৩

কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আসলামের বিরুদ্ধে ফেসবুক লাইভে মানহানীকর ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য ছিলো অন্যের প্ররোচনায় ও ভুল, এই মর্মে গত ৩ ডিসেম্বর ভিডিও ও লিখিত স্বীকারোক্তি দিয়েছেন অভিযোগকারী নারী সাদিয়া আফরিন সপ্না। নিজের ভুল বুঝতে পেরে অনুতপ্ত হয়ে সকল অভিযোগ সজ্ঞানে প্রত্যাহার করে নিয়েছেন তিনি।

লিখিত বক্তব্যে অনুযায়ী, আমি সাদিয়া আফরিন সপ্না,
পিতা- মোঃ আব্দুর রশিদ, গ্ৰাম- ভেটুয়া জগন্নাথপুর,
ইউনিয়ন-চরগিরিশ, উপজেলা কাজিপুর, জেলা সিরাজগঞ্জ।

আমি ভুল বুঝিয়া ও অন্যের দ্বারা প্রভাবিত হইয়া গত ১ ডিসেম্বর ২০২৩ তারিখে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভে এসে কাজিপুর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আসলামের বিরুদ্ধে অন্যের প্ররোচনায় কুরুচিপূর্ণ ও মানহানীকর বক্তব্য প্রদান করি, যা পরবর্তীতে কিছু অতি উৎসাহী সংবাদকর্মী ফেসবুকের মাধ্যমে ফলাও করে প্রচার করে। পরবর্তীতে আমি নিজের ভুল বুঝতে পেরে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য প্রত্যাহার করিলাম, আমি হাজিরান মজলিসে সজ্ঞানে সুস্থ্য মস্তিষ্কে উক্ত ব্যক্তি উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলী আসলামকে আমার আনীত অভিযোগ থেকে অব্যাহতি প্রদান করিলাম। পরবর্তীতে আমি বা আমার পরিবারের কেহ বা আমি কোনো অভিযোগ বা মামলা মোকদ্দমা করিতে পারিবে না। তাহা হইলে আইনে অগ্ৰাহ্য বলে বিবেচিত হইবে। বক্তব্য শেষে ৫ জনকে সাক্ষী হিসেবে রাখা হয়েছে, তাদের মধ্যে নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান তোজাম্মেল হক ছাড়াও জাকির হোসেন তালুকদার, শহিদুল ইসলাম ও মোঃ রাসেল রয়েছেন।

356
Spread the love


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর