• মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:১৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ভাঙ্গুড়ায় জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা পদক প্রতিযোগিতা অনুষ্টিত আগামী চার মাসে প্রাথমিকে নিয়োগ হবে ১০ হাজার শিক্ষক স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে সরকার সঠিক পথেই এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও উন্নয়ন অনেক দেশের অনুপ্রেরণা ২৪ দিনে দেশে রেমিট্যান্স এলো ১৮ হাজার কোটি টাকা বস্ত্রখাতে বিশেষ অবদান, সম্মাননা পাচ্ছে ১১ সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান সম্পর্কের নতুন অধ্যায় শুরু করতে আগ্রহী বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সংরক্ষিত ৫০ নারী আসনে সবাই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী সম্মানী ভাতা বাড়ল কাউন্সিলরদের ‘শেখ হাসিনার বাংলাদেশে প্রাণিজ প্রোটিনের অভাব হবে না’ বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে জাতীয় ও আগরতলা প্রেসক্লাবের নেতাদের শ্রদ্ধা সিরবজগঞ্জে চালক-হেলপার হত্যা,মৃত্যুদন্ড পলাতক আসামি গ্রেফতার সিরাজগঞ্জে জেলা পর্যায়ে প্র‌শিক্ষণ প্রাপ্ত ইমাম সম্মেলন অনুষ্ঠিত সিরাজগঞ্জে কৈশোর মেলা অনুষ্ঠিত গাজীপুরে পূর্ব বিরোধের জেরে যুবক খুন সলঙ্গায় যুবককে কুপিয়ে ইজিবাইক ছিনতাই, ৩৬ ঘন্টা পর উদ্ধার আটক ১ নারী এমপিরা সংসদে যোগ দিচ্ছেন চলতি অধিবেশনেই টোলের আওতায় আসছে দেশের সাত মহাসড়ক আলোচনায় মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণ পর্যটক টানতে কুয়াকাটায় হচ্ছে বিমানবন্দর

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুরঃ

তিন বখাটের অত্যাচারে অতিষ্ঠ সাধারণ মানুষ 

কলমের বার্তা / ৮৮ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : বুধবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২৩

গাজীপুরের কোনাবাড়ীতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আব্দুর রশিদ (৩৫) নামে এক পোশাক শ্রমিককে মারধরের অভিযোগ উঠেছে তিন বখাটের বিরুদ্ধে। এঘটনার পর থেকেই তিন বখাটে পলাতক রয়েছে। মিমাংসার জন্য বিভিন্ন জনকে দিয়ে চালাচ্ছে জোর তদবীর।

মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) বিকেলে কোনাবাড়ী থানাধীন জরুন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত আব্দুর রশিদ টাঙ্গাইল জেলার গোপালপুর থানার আলম নগর গ্রামের জয়নাল আবেদীন এর
ছেলে। সে পরিবার নিয়ে ওই এলাকায় সাইজুদ্দিন আহমেদ এর ভাড়া বাসায় থেকে স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় চাকুরী করতো। সে বর্তমানে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।

অপর দিকে অভিযুক্ত ৩ বখাটে হলেন কোনাবাড়ী
থানাধীন জরুন এলাকায় সানোয়ার খন্দকার এর
ছেলে অপু (২৪),সাকিব (১৭) এবং সায়েম (১৪)।
সম্পর্কে তারা সহোদর তিন ভাই। ইতিপূর্বে তাদের বিরুদ্ধে কোনাবাড়ী থানায় ছিনতাইসহ বেশ কয়েকটি অভিযোগ রয়েছে।

আহতের স্ত্রী জোসনা বেগম বলেন, মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) বিকেলে অপু জরুন খেলার মাঠে ফুটবল খেলছিল। হঠাৎ তাদের বল এসে আমার দেড় বছরের বাচ্চার মুখে লাগে। তখন আমার ছোট ভাই শাকিল (১৮) (শ্রবণ ও বাক প্রতিবন্ধী) বুজতে না পেরে বলটি বাসায় এনে ইশারা দিয়ে বোঝাচ্ছিল যে,তারা খেলার সময় এই বলটি আমার ছোট বাচ্চার মুখে লাগে। তখন আমার স্বামী বলটি তাদের ফেরত দিতে গেলে অপুর সাথে বাকবিতন্ডা হয়। অপু আমার স্বামীর শার্ট এর কলার ধরে ধাক্কা মারে। পরে আমার স্বামী অপুকে বোঝাতে চেষ্টা করে তার শ্যালক শ্রবণ ও বাক প্রতিবন্ধী বুজতে পারেনি তাই বলটি বাসায় নিয়ে যায়। কোন কথাই শুনতে নারাজ বখাটে অপু।

সে তার আরো বখাটে দুই ভাইকে ফোন করে ডেকে আনে। তারা হাতে দেশীয় অস্ত্র সস্ত্র (বাটাম, লোহার রড) নিয়ে ফিল্ম স্টাইলে আমার স্বামীকে বেধড়ক মারধর করে। সবাই দাঁড়িয়ে থেকে দেখেছে তাদের তান্ডব, কেউ বাঁচাতে এগিয়ে আসেনি। আমি শারীরিক ভাবে অসুস্থ ছিলাম বাসার ভিতর থেকে বের হয়ে দেখি তারা আমার স্বামীকে মারছে। আমি নিষেধ করলে বখাটে অপু আমাকেও বাটাম দিয়ে দুইটা বারি মারে। পরে আমার স্বামীকে উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করি। তিনি বলেন,মাথায় ১৬ টি সেলাই লেগেছে। এছাড়াও পুরো শরীরে ক্ষত চিহ্ন রয়েছে। ডাক্তার বলছে সিটিসক্যান করতে। কান্না করতে করতে জোসনা বেগম বলেন, আমরা ভাড়াটিয়া বলে মানুষ না। তারা স্থানীয় বলে যা খুশি তাই করবে।

এ বিষয়ে জানতে বখাটে অপুর সাথে যোগাযোগের
চেষ্টা করা হলে তার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন কোনাবাড়ী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো.মহিউদ্দিন ফারুক বলেন,এ বিষয়ে কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

97
Spread the love


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর